গোপালগঞ্জে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী দুলাল শেখ হত্যা মমলায় ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন আদালত। মঙ্গলবার গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. আব্বাস উদ্দীন এ আদেশ দেন। 

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার ভট্টাচার্য্য কান্দি গ্রামের মো. মান্নান শেখের ছেলে ফক্কার শেখ, মুছা শেখের ছেলে মো. মেহেদী হাসান শেখ, গোহালা গ্রামের শংকর সাহার ছেলে সুমন সাহা, একই গ্রামের মো. কাঞ্চন ফকিরের ছেলে মো. কাওছার ফকির এবং শ্রীজিতপুর গ্রামের সিরাজ মোল্লার ছেলে মো. আল আমিন মোল্লা। তারা সবাই পলাতক রয়েছে। 

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এপিপি অ্যাডভোকেট মো. শহিদুজ্জামান খান এবং আসামিপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মুন্সী মো. আতিয়ার রহমান ও মোহাম্মদ আবু তালেব শেখ। 

আসামীপক্ষের আইনজীবী মুন্সী মো. আতিয়ার রহমান মামলার বরাত দিয়ে জানান, ২০১২ সালের ২ জুন রাতে আসামিরা দুলাল শেখকে পরষ্পর যোগসাজসে কুপিয়ে হত্যা করে কুমার নদীতে ফেলে দেয়। পরের দিন ৩ জুন নদীর পানি থেকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে। ওই দিনই নিহতের স্ত্রী সুলতানা বেগম ৫ জনকে আসামি করে মুকসুদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে পুলিশ ৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে ৫ অসামিকে অভিযুক্ত করে বিচারক মৃত্যুদণ্ড ও প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দেন।