গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় মন্দির পরিচালনা কমিটিতে নাম না থাকা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে সুবল শিকদার (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার কাকুইবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সুবল কাকুইবুনিয়া গ্রামের মৃত নিশিকান্ত শিকদারের ছেলে। আহত পাঁচজনকে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সুবলের ভাতিজা বিপিন শিকদার বলেন, আমার কাকা সুবল কাকুইবুনিয়া সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরের জমির দাতা। কিন্তু টুঙ্গিপাড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বিশ্বাস ও তার লোকজন প্রভাব খাটিয়ে মন্দির কমিটিতে তার নাম রাখেননি। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে টুঙ্গিপাড়া তফসিল অফিসের লোকজন ওই মন্দিরের জমি নিয়ে তদন্ত করতে আসেন। তারা তদন্ত করে ফিরেও যান। এরপরই কাকা ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বিশ্বাসের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতেই কাকা নিহত হন।

টুঙ্গিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম সুলতান মাহমুদ বলেন, সুবলের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত করে বিস্তারিত বলা যাবে।