মানব কঙ্কালের বিচ্ছিন্ন ৮৮টি হাড়সহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা রেলপথ থানা পুলিশ। সোমবার সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে এ অভিযান চালানো হয়। তখন তাদের সঙ্গে থাকা একটি ট্রাভেল ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া যায় এসব হাড়। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা এলাকার একটি কবরস্থান থেকে তারা এসব হাড় নিয়ে এসেছে।

ঢাকা রেলপথ থানার এসআই রিয়াজ মাহমুদ সমকালকে বলেন, মনিরুজ্জামান মনির ও হারুনর রশিদ রুবেল নামে দুই যুবক পলিথিনে মুড়িয়ে ব্যাগে ভরে হাড়গুলো নিয়ে আসে। তারা বাসে এসেছিল ঢাকায়। এরপর কমলাপুর রেলস্টেশন সংলগ্ন ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে মুগদার দিকে যাওয়ার কথা ছিল। এরমধ্যে রেলস্টেশনের পাবলিক টয়লেটের পাশে সন্দেহজনক গতিবিধির কারণে তাদের আটক করা হয়। পরে তাদের ব্যাগ খুলে হাড় পাওয়া যায়। এরমধ্যে মাথার খুলি, হাত-পায়ের হাড় ইত্যাদি রয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা আজিজুর রহমান রুবেল নামে একজনের কাছে হাড়গুলো পৌঁছে দিতে এসেছে। পরে তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়।
পুলিশ জানায়, আজিজুর রহমান ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় মানব কঙ্কাল বা হাড় বিক্রি করেন। অপর দু'জন তার সহযোগী। মূলত বিভিন্ন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা তাদের ক্রেতা। পড়ালেখার প্রয়োজনেই তাদের কঙ্কাল প্রয়োজন হয়। যদিও দেশে কঙ্কাল বেচাকেনা বৈধ নয়। এই চক্রটি আগেও একাধিকবার কঙ্কাল এনে বিক্রি করেছে।

তাদের দাবি, এজন্য মাথাপিছু এক বা দুই হাজার টাকা পায় তারা। তবে একটি কঙ্কাল সাধারণত ২০-৩০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেপ্তারকৃতদের মঙ্গলবার আদালতে হাজির করে রিমান্ডে চাওয়া হবে।