‘আমার নামে মিথ্যা রটানো হচ্ছে’

প্রকাশ: ১২ মে ২০২০     আপডেট: ১২ মে ২০২০   

বিনোদন প্রতিবেদক

উর্মিলা শ্রাবন্তী কর

উর্মিলা শ্রাবন্তী কর

করোনাভাইরাসের কারণে নাটক সংশ্লিষ্ট সংগঠগুলো নাটকের সব ধরনের শুটিং বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। সংগঠনের নিয়ম মেনেই আপাতত নাটকের শুটিং বন্ধ আছে।  জানা গেছে সম্প্রতি ঢাকার অদূরে হাসনা হেনা শুটিং হাউজে এনটিভিতে আগামী ঈদে প্রচারের উদ্দেশ্যে একটি সাত পর্বের নাটক নাটকের শুটিং করছিলেন পরিচালক আদিবাসী মিজান। পরিবর্তীতে জানাজানি হওয়ায় এর কাজটি হয়নি।  এই নাটকে কাজ করছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর এমন অভিযোগ ওঠেছে। 

তবে এই অভিযোগ ভিত্তিহীন ও বানোয়াট বললেন এই অভিনেত্রী।

এ সম্পর্কে ঊর্মিলা সমকাল অনলাইনকে বলেন, 'আমার মায়ের ক্যান্সার।দেড় মাস হলো অপারেশন হয়েছে। কম বেশী সবাই এই খবর  জানে। করোনার কারনে এজন্য  মা'কে নিয়ে আরও বেশি সচেতন থাকতে হচ্ছে আমাদের। মায়ের অসুস্থ্যতার জন্য আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। সারাক্ষন  মায়ের পাশে থাকতে হয় আমার।  সম্প্রতি একটি প্রডাকশন থেকে আমার কাছে একটি নাটকে কাজের জন্য ডেট চাওয়া হয়। একটা অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে হবে। আমি স্পষ্ট জানিয়ে দেই বাসার এই পরিস্থিতি এবং করোনাভাইরাসের মধ্যে আমি কোথাও যেতে পারব না। আপাতত কাজটি করতে পারবো না। পরিস্থিতি ভালো হলে পরবর্তিতে আমি ডেট মিলিয়ে অবশ্যই কাজটি শেষ করে দিবো। কিন্তু এর একদিন পরেই এই শ্যূটিংকে কেন্দ্র করে আমার নামে ভুল তথ্য শেয়ার করছেন। 

একদিকে মায়ের অসুস্থতা, অন্যদিকে স্বতীর্থদের এমন দূর্ব্যবহার আমাকে প্রচন্ড মানসিক যন্ত্রনা দিচ্ছে।  আমি যেখানে যাইনি সেখানে আমার যাওয়ার খবর চলে এলো অনেকে  আমাকে ফোন করে বার বার প্রশ্নের মুখে ফেলছেন।

যেখানে শুটিং করার কথা বলা হচ্ছে সেই শুটিং বাড়ির সিসিটিভি ফুটেজ দেখার আহ্বান করেন উর্মিলা। ঊর্মিলা জানান, একটু খোঁজ নিলেই সঠিক তথ্য পাওয়া যেত। যে হাস্নাহেনার কথা বলা হচ্ছে সেখানে কথা বললেও তারা নিশ্চিত করতো নাটকের শুটিং হচ্ছে কী না। হলে কে কে অভিনয় করছেন। কোনো যাচাই বাছাই ছাড়া যিনি বা যারা আমাকে নিয়ে মিথ্যে সংবাদটি করেছেন তারা কাজটি ঠিক করেননি। আমি এর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা চাইবো নাটক সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর কাছে।