দেশের অন্তত এক লাখ পরিবারে স্যামসাং পণ্য পৌঁছে দিয়েছে দেশিয় ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস ইভ্যালি ডট কম ডট বিডি। 

রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার বাইরে থাকা ইভ্যালির এই গ্রাহকেরা স্যামসাং ব্র্যান্ডের টিভি, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন এবং এসিসহ বিভিন্ন ধরনের কনজিউমার ইলেকট্রনিক্স পণ্য কিনে ঘরেই সেগুলো হোম ডেলিভারিতে বুঝে পেয়েছেন।

সম্প্রতি ইভ্যালি এবং বাংলাদেশে স্যামসাং এর অনুমোদিত পরিবেশক ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স সূত্রে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া যায়।

প্রতিষ্ঠান দুইটি বলছে, গেল বছরের ৩ নভেম্বরও দেশের এক লাখ পরিবারের স্যামসাং পণ্য পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে একত্রে কাজ শুরু করে ইভ্যালি ও ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স। সম্প্রতি নিজেদের সেই কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছায় দেশীয় প্রতিষ্ঠান দুইটি।

এ বিষয়ে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল বলেন, 'ডিজিটাল নেশন অন স্মার্ট টেলিভিশন' স্তোগানকে সামনে রেখে ইভ্যালি ও ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স একটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যকে সামনে রেখে এই ক্যাম্পেইনটি শুরু করেছিল। আর সেই লক্ষ্যটি হচ্ছে দেশের অন্তত এক লাখ পরিবারে স্যামসাং ব্র্যান্ডের পণ্য সুলভ মূল্যে পৌঁছে দেওয়া। সম্প্রতি আমরা আমাদেও কাঙ্খিত সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পেরেছি। ইভ্যালি ও ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স মিলে অন্তত এক লাখ ইউনিট পণ্য গ্রাহকদের বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছি।

ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স ও ইভ্যালি একত্রে দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছাতে চায় উলেতখ করে ফেয়ার গ্রুপের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) মেজবাহ উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশে স্যামসাং মোবাইল এবং ইলেকট্রনিক্স এর গর্বিত উৎপাদক ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স। বাংলাদেশে উৎপাদিত পণ্য সবাই যেভাবে নিজেদের করে নিয়েছেন আমরা তার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। বাংলাদেশের ডিজিটালাইজেশনে স্যামসাং প্রযুক্তির মাধ্যমে অংশ হতে পেরে আমরা আনন্দিত। 

অন্যদিকে ফেয়ার গ্রুপের হেড অব মার্কেটিং জে.এম তসলিম কবীর বলেন, ইভ্যালির মাধ্যমে স্যামসাং পণ্যের আরও অর্ডার পাচ্ছি আমরা। সেগুলোও ধাপে ধাপে প্রতিদিন আমরা সরবরাহ করছি। আমাদের প্রত্যাশা এই যে, একসময় দেশের প্রতিটি ঘরে ইভ্যালির মাধ্যমে স্যামসাং এর পণ্য পৌঁছে দেবে ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


মন্তব্য করুন