২০২০ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় গত তিন বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ বেড়েছে বলে জানিয়েছে  কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)। বুধবার অনলাইনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানায় সংগঠনটি। ২০২০ সালের জীবনযাত্রার ব্যয় ও ভোক্তা-স্বার্থ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ের ওপর প্রতিবেদন প্রকাশ করতে গিয়ে সংগঠনটি এ তথ্য জানায়।

এতে বলা হয়, গত তিন বছর ধরে ঢাকায় বসবাস করতে বেশি টাকা খরচ করতে হচ্ছে রাজধানীবাসীকে। এর মধ্যে ২০২০ সালে ব্যয় বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২০ সালে রাজধানীতে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ৬ দশমিক ৮৮ শতাংশ। সেবা-সার্ভিসের দাম বেড়েছে ৬ দশমিক ৩১ শতাংশ। ২০১৯ সালে যা ছিল যথাক্রমে ৬ দশমিক ৫০ শতাংশ ও ৬ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। এর আগের বছর তা ছিল ৬ শতাংশ ও ৫ দশমিক ১৯ শতাংশ।

ক্যাব জানায়, গত তিন বছরের মধ্যে ২০২০ সালে রাজধানীতে জীবনযাত্রার ব্যয় সর্বাধিক বেড়েছে। এই সময় করোনা ভাইরাসের প্রভাবে নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষের আয় অনেক কমেছে। ফলে, ২০২০ সালে নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্ত ভোক্তাদের জীবনযাত্রার মান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে চালের গড় দাম বেড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ। এছাড়া মসুরের ডাল ১৪ দশমিক ১৮ শতাংশ, মসলা ২৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ, শাকসবজি ৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ, গরু-খাসির মাংস ১০ দশমিক ৪৯ শতাংশ ও মুরগির দাম বেড়েছে ১০ দশমিক ৮৩ শতাংশ। 

এতে বলা হয়, ডিমের দাম ৫ দশমিক ৩২ শতাংশ, মাছের দাম ৭ দশমিক ১৩ শতাংশ ও গুঁড়া দুধের দাম বেড়েছে ৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান, সহসভাপতি এস এম নাজের হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির ভুইয়া সংযুক্ত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে ক্যাবের জেলা প্রতিনিধিরাও অংশ নেন। 






বিষয় : ক্যাব জীবনযাত্রার ব্যয় রাজধানী সংবাদ সম্মেলন

মন্তব্য করুন