ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলেশা মার্ট ডান অ্যান্ড ব্র্যাডস্ট্রিট গ্লোবাল ডেটাবেজের অংশ হয়েছে। সম্প্রতি ডান অ্যান্ড ব্র্যাডস্ট্রিট সাউথ এশিয়া মিডল ইস্ট লিমিটেড-এর কাছ থেকে এ সংক্রান্ত একটি সনদ পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। 

আলেশা মার্ট-এর আয়, ব্যয় এবং লাভ-ক্ষতির ব্যালেন্স শিটে কোনো অসঙ্গতি না থাকায় এই সনদ অর্জন সম্ভব হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে আলেশা মার্ট।

আলেশা হোল্ডিংস লিমিটেড-এর অন্যতম এই অঙ্গ প্রতিষ্ঠানটি করোনাকালে ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষের কর্মসংস্থান তৈরি করেছে। বর্তমানে প্রায় ২২ হাজার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তা এই ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মের হয়ে কাজ করছে।

আলেশা মার্ট- বলছে, তারা সময়ের আগেই পণ্য ডেলিভারি দিয়ে থাকে। অর্ডার এবং ডেলিভারির মধ্যে প্রতিশ্রুতির বাইরে বাড়তি কোনো দীর্ঘসূত্রিতাও নেই। 

মোটরসাইকেল কেনায় গ্রাহকদের অভূতপূর্ব সাড়ার ফলে প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যেই কাস্টমারদের বাড়তি সুবিধা দেয়ার জন্য বিভিন্ন জায়গায় হাব; বাইক ডেলিভারি পয়েন্ট ও ফিজিক্যাল কাস্টমার কেয়ার স্থাপন করেছে। 

গ্রাহকদের কাঙ্ক্ষিত অর্ডার স্বচ্ছভাবে পরিচালিত করতে প্রতিটি ক্যাম্পেইন ধরে ধরে বাইকের ব্র্যান্ড; ডেলিভারি শিডিউল, ফিজিক্যাল বাইক ডেলিভারি পয়েন্ট এবং অফিসিয়াল যোগাযোগের ঠিকানাসহ সমস্ত তথ্য আলেশা মার্ট-এর প্রাতিষ্ঠানিক ফেসবুক পেইজে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়। 

আলেশা মার্ট বলছে, ‘ই-কমার্স সেক্টরে যে অস্থিরতা চলছে, যদি কোনো গ্রাহক সেসব বিবেচনায় দ্বিধান্বিত হয়ে টাকা ফেরত চান, সেটা ফিরিয়ে দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।’

অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে এক বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, মে-জুন, ২০২১ বাইক ক্যাম্পেইনে যারা বাইক কেনার জন্য টাকা দিয়েছিলেন; যথাযথ তথ্য দিলে প্রতিষ্ঠানটির কল সেন্টার থেকে টাকা ফেরত দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, আলেশা মার্ট আলেশা হোল্ডিংস লিমিটেড-এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের আরও ১৩টি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান থাকায় যেকোনো উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আলেশা মার্টকে কারোর দ্বারস্থ হতে হবে না। 

গ্রাহকদের কাছে ই-কমার্স ব্যবসার আস্থার জায়গা পুনরায় ফিরিয়ে আনতে যেকোনো সরকারি উদ্যোগকে সকল ধরনের সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।