নওগাঁর পত্নীতলায় ব্যাটারিচালিত ভ্যানের শ্যাপ (ধুরি) ভেঙ্গে ট্রাক্টরের চাপায় ভ্যানের এক নারী যাত্রীসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সাপাহার-নজিপুর সড়কের নকুচা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন, উপজেলার বড় মাহরন্দী গ্রামের জুয়েল হোসেনের স্ত্রী বুলবুলি আক্তার (৪২) ও একই গ্রামের মৃত ময়েজ উদ্দিনের ছেলে ফারুক হোসেন (৬০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে একটি ব্যাটারিচালিত চার্জার ভ্যানে চার যাত্রী উপজেলার বাকরইল থেকে মধইল বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে নকুচা এলাকায় ভ্যানের শ্যাপ (ধুরি) ভেঙে রাস্তার মাঝে পড়ে যায়। বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগতির ট্রাক্টর ওই ভাঙা ভ্যানটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বুলবুলি আক্তার মারা যান। গুরুত্বর আহত ফারুক হোসেনসহ তিনজনকে উদ্ধার করে পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টার দিকে ফারুক হোসেন মারা যান। অপর দু’জন সেখানেই চিকিৎসাধীন আছেন। 

দুর্ঘটনার পর বালুবাহী ট্রাক্টরটি উল্টে যায়। পরে পত্নীতলা ফায়ার সার্ভিস ইউনিট নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশে সোপর্দ করে। ঘটনার পর ট্রাক্টর চালক পালিয়ে যায়।

পত্নীতলা ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের স্টেশন অফিসার রায়হান ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যান। লাশ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে।

পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম বলেন, দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। ভ্যানের শ্যাপ ভেঙে যাওয়ায় এ দুর্ঘটনাটি হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। ঘটনার পর ট্রাক্টরের চালক পালিয়ে গেছে। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বিষয় : নওগাঁ পত্নীতলা সড়ক ‍দুর্ঘটনা

মন্তব্য করুন