বিশ্ব বাংকের সঙ্গে সাড়ে ৫১ কোটি ডলারের ঋণ চুক্তি করেছে বাংলাদেশ সরকার। ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের ৯০ লাখ মানুষের জন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ এবং পরিবেশবান্ধব জ্বালানি নিশ্চিত করতে এ ঋণ চুক্তি করা হয়। বিশ্ব বাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলেপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) পাঁচ বছর গ্রেস পিরিয়ড ধরে ৩৫ বছরের জন্য এই ঋণ দেবে। 

বৃহস্পতিবার বিশ্ব ব্যাংক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ঋণের এই অর্থ ঢাকা ও ময়মনসিংহ অঞ্চলের ২৫টি গ্রামীণ এলাকায় বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার আধুনিকীকরণে ব্যয় হবে। এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহের ‘সিস্টেম লস’ কমে যাবে ২ শতাংশের বেশি। এছাড়া বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের বিদ্যুৎ সরবরাহ ঘণ্টায় ৬ হাজার ৭৯০ গিগাওয়াট বাড়ানোর পাশাপাশি বিদ্যুৎ ব্যবস্থাকে জলবায়ু সহিষ্ণু করে তোলা হবে।

বাংলাদেশ ও ভুটানে বিশ্ব ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর ড্যানডান চেন বলেন, এই কর্মসূচির আওতায় বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের মাধ্যমে ১০০ জনের বেশি গ্রাহককে সোলার মিটার সংযোগ দেওয়া যাবে। গ্রিডে নতুন ১৫০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুত যুক্ত হবে। ৩১ হাজার কিলোমিটার বিতরণ লাইনে ২ লাখ উন্নত মিটার বসানো যাবে। ব্যাটারি এনার্জি স্টোরেজ সিস্টেম শক্তিশালীকরণ ও নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার বৃদ্ধির মাধ্যমে বার্ষিক কার্বন নির্গমন ৪১ হাজার ৪০০ মেট্রিক টন কমানোর লক্ষ্যও রয়েছে এই প্রকল্পে।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন বলেন, পরিবেশবান্ধব ও নির্ভরযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর উৎপাদনশীলতা বাড়াতে এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলো মোকাবিলায় সাহায্য করবে এই কর্মসূচি।