ঢাকা সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪

বাঘ দিয়ে জলহস্তী পেল চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা

বাঘ দিয়ে জলহস্তী পেল চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা

চট্টগ্রাম ব্যুরো

প্রকাশ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১৫:৫৯ | আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১৫:৫৯

প্রাণী বিনিময়ের মাধ্যমে রংপুর চিড়িয়াখানায় এক জোড়া বাঘ পাঠিয়ে এর পরিবর্তে ঢাকা থেকে এক জোড়া জলহস্তী পেয়েছে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার ১২ বছরের একটি পুরুষ জলহস্তী চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় এসে পৌঁছায়। কয়েক দিন পর আরেকটি জলহস্তী আসবে বলে জানা গেছে।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার নির্বাহী কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানের উদ্যোগে প্রাণী বিনিময়ের আওতায় এক জোড়া বাঘ রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানায় পাঠানো হয়। লাল কাপড়ে মোড়ানো লোহার দুটি খাঁচায় বাঘগুলো নিয়ে যাওয়া হয় রংপুরে। বিনিময়ে এক জোড়া জলহস্তী চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় দেওয়ার জন্য মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব অনুমতি দেন।

আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, প্রথমবারের মতো চিড়িয়াখানায় সংযোজিত জলহস্তী চট্টগ্রামবাসীর জন্য এক অনন্য উপহার। চট্টগ্রামের মানুষের পছন্দের শীর্ষে থাকা এ চিড়িয়াখানা ঘিরে দেশ-বিদেশ থেকে প্রাণী আনাসহ অবকাঠামোগত নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব কিছুর বাস্তবায়ন করা হবে।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর ডা. শাহাদাৎ শুভ হোসেন জানান, এখান থেকে গত ১৯ সেপ্টেম্বর রংপুর চিড়িয়াখানায় এক জোড়া বাঘ পাঠানো হয়। বিনিময়ে বৃহস্পতিবার প্রথম ধাপে ১২ বছর বয়সী একটি পুরুষ জলহস্তী আমরা পেয়েছি। এক সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয় ধাপে আরেকটি জলহস্তী আসবে। চিড়িয়াখানার কুমিরের থাকার জায়গায় নতুন করে জলহস্তীর বাসস্থান করা হয়েছে। কুমিরের খাঁচা তৈরি করা হয়েছে পাহাড়ের পশ্চিম পাশে লেকের মধ্যে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক পরিবেশে।

চট্টগ্রাম নগরের ফয়েস লেকে ১৯৮৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পাহাড়ি জমির ওপর গড়ে তোলা নান্দনিক চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় প্রায় ৬৯ প্রজাতির ছয় শতাধিক পশুপাখি রয়েছে।

আরও পড়ুন

×