এই প্রথম কলকাতা থেকে জলপথে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম হয়ে স্থলপথে ত্রিপুরার আগরতলায় পৌঁছুল ভারতের পণ্য। বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই ঘটনাকে ‘মাইলফলক’ বলে উল্লেখ করে জানায়, ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক এবং বাণিজ্যিক অংশীদারিত্বে এই ঘটনা ইতিহাস হয়ে থাকবে।

বাংলাদেশের মাধ্যমে ভারতের পণ্যবাহী জাহাজ চলাচলের জন্য চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহার সংক্রান্ত একটি চুক্তির আওতায় এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। আর এর মধ্যদিয়ে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যে পণ্য পরিবহনে সময় কমল ভারতের। খবর স্ট্রাটনিউজ গ্লোবাল ও বিজনেস টুডে’র

ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মনসুখ মান্ডভ্য গত সপ্তাহে পতাকা নাড়িয়ে প্রথম পরীক্ষামূলক পণ্যবাহী জাহাজটির যাত্রার সূচনা করেন। কলকাতা থেকে যাত্রা করে জাহাজটি চট্টগ্রামে পৌঁছায়। সেখান থেকে স্থলপথে কন্টেইনারগুলো আগরতলায় পৌঁছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, এই পদক্ষেপ উত্তর-পূর্ব ভারতের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষীয় সম্পর্ককে আরও মজবুত করবে এই উদ্যোগ। দু’দেশের সাধারণ মানুষকে সুবিধা দিতেই ঐক্যমতে পৌঁছা এবং যার ফলে এই সাফল্য পাওয়া গেছে। আমরা ভারত-বাংলাদেশ সামুদ্রিক এবং বাণিজ্যিক অংশীদারিত্বের একটি ঐতিহাসিক সন্ধিক্ষণ অতিক্রম করলাম। কলকাতা থেকে বাংলাদেশ হয়ে সফল ভাবেই পণ্যগুলো আগরতলায় পৌঁছেছে।

প্রথমবারের এই পরীক্ষামূলক পরিবহণে চারটি কন্টেইনার পাঠিয়েছে ভারত, যেগুলোর মধ্যে দু’টি কন্টেইনারে রয়েছে ডাল এবং বাকি দু’টিতে রড। কলকাতা থেকে যাত্রার পর পণ্যবাহী জাহাজটি পৌঁছোয় চট্টগ্রামে। সেখানে সড়কপথে আখাউড়া-আগরতলা স্থলবন্দর হয়ে গন্তব্যে পৌঁছোয় কন্টেইনারগুলো।