কিশোরগঞ্জে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার (ইজিবাইক) ওপর চাঁদাবাজি, জব্দ করা ইজিবাইক ফেরত ও নবায়ন ফি কমানের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ইজিবাইক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন নামে একটি সংগঠন। সোমবার বিকেলে শহরের গৌরাঙ্গবাজার এলাকায় এ কর্মসূচি পালন করে তারা। এতে শহরের দুই শতাধিক ইজিবাইক চালক অংশ নেয়।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শ্রমিকরা জানান, ইজিবাইকের ওপর পৌর কর্তৃপক্ষ অযৌক্তিক নিবন্ধন ফি চাপিয়ে দিয়েছে। এই ফি দেওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তাছাড়া প্রতিনিয়ত চাঁদাবাজির শিকার হচ্ছেন তারা। কথায় কথায় ইজিবাইক জব্দ করে নিয়ে যাওয়া হয়। এই অত্যাচার বন্ধ করতে হবে। নইলে তারা কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন।

কিশোরগঞ্জ পৌর ইজিবাইক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম সৈয়দের সভাপতিত্বে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন,  জেলা সিপিবির সাধারণ সম্পাদক এমানুল হক, জেলা ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সাত্তার, পৌর ইজিবাইক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সদস্য সচিব মাজহারুল ইসলাম দেওয়ান, যুগ্ম-আহ্বায়ক শরিফুল আলম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, কিশোরগঞ্জ পৌর এলাকায় চলাচলের জন্য ২০১৭ সালে  জিবাইক প্রতি ৬ হাজার ৫০ টাকা নিয়ে ৬০০ ইজিবাইককে পৌর মনোগ্রাম দেয় পৌরসভা। তখন পৌরসভার মনোগ্রাম নবায়নের কোন শর্ত না থাকলেও পৌর কর্তৃপক্ষ বর্তমানে প্রতিটি ইজিবাইকের পৌর মনোগ্রাম ফি ৫১০০ টাকা ফি নির্ধারণ করেছে। মাত্রাতিরিক্ত অযৌক্তিক ফি পরিশোধ করা তাদের পক্ষে একেবারেই অসম্ভব। তারা পৌরসভার নবায়ন ফি কমিয়ে ৫০০ টাকা করার দাবি জানান। তাছাড়া ইজিবাইক চলাচলে একটি নীতিমালা করার দাবিও জানান বক্তারা।