পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বিভিন্ন পদক্ষেপে‌ দেশের পুঁজিবাজারে ইতিবাচক ধারা অব্যাহত রয়েছে। রোববার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন চলছে। সকালে লেনদেন শুরুর পর দেড় ঘণ্টায় দুই স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন এক হাজার ৪০০ কোটি ছাড়িয়ে গেছে।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় দিনের লেনদেন শুরুর পর বেলা ১২টা পর্যন্ত প্রথম দেড় ঘণ্টার লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা গেছে,  ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হওয়া ৩৫৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়ে লেনদেন হচ্ছিল ১১৩টির এবং দর কমে লেনদেন হচ্ছিল ১৭৩টির। এ ছাড়া আগের দিনের দরে লেনদেন হচ্ছিল ৭০টি। উল্লেখিত সময় পর্যন্ত ডিএসইতে ১ হাজার ৩৪৭ কোটি টাকারও বেশি মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়। 

বেশিরভাগ শেয়ারের দর হারানোর মধ্য দিয়ে দিনের লেনদেন চললেও ডিএসইর বেশির ভাগ সূচকেই দেখা যাচ্ছে ঊর্ধ্বগতি। বেলা ১২টা পর্যন্ত ডিএসইএক্স সূচক আগের দিনের চেয়ে ২৬ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৯৩৫ পয়েন্টে, ডিএসইএস সূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩১৭ পয়েন্টে ও ডিএসই৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ২৪৪ পয়েন্টে অবস্থান করছিল।

এদিকে ঢাকার মতো চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) রোববার বেশিরভাগ শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড দর হারিয়ে লেনদেন হলেও প্রায় সবগুলো সূচকেই উর্ধ্বমুখী ধারা রয়েছে। বেলা ১২টা পর্যন্ত এই স্টক এক্সচেঞ্জ লেনদেন হওয়া ২২৮টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৭৭টির দর বেড়ে ও ১১৯টির দর কমে লেনদেন হচ্ছিল। এছাড়া আগের দিনের দরে লেনদেন হচ্ছিল ৩২টি।

বেলা ১২টা পর্যন্ত সিএসই৫০ সূচক আগের দিনের চেয়ে ৯ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩১৮ পয়েন্টে, সিএসই৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট বেড়ে ১৩ হাজার ৬১৭ পয়েন্টে, সিএসইএক্স সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ৪১৯ পয়েন্টে, সিএএসপিআই সূচক ৪০ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ২৬৫ পয়েন্টে ও সিএসআই সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯৩ পয়েন্টে অবস্থান করছিল।

উল্লেখিত সময় পর্যন্ত সিএসইতে ৬২ কোটি ৫০ লাখ টাকারও বেশি মূল্যের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড কেনাবেচা হয়েছে।