সৌদি আরবের বাজারে বাংলাদেশের ১৩৭ পণ্যে শুল্কমুক্ত প্রবেশ সুবিধা দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। শনিবার সৌদি আরবের রিয়াদে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে এক ভার্চুয়াল সভায় অংশ নিয়ে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী ড. মজিদ বিন আবদুল্লাহ আল কাসাবির কাছে এ অনুরোধ জানান তিনি। এ ছাড়া সৌদি পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (পিআইএফ) আওতায় বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন সালমান এফ রহমান।

সালমান এফ রহমান বর্তমানে উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধি দল নিয়ে সৌদি আরব সফর করছেন। দু'দেশের ব্যবসা বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানো এ সফরের মূল লক্ষ্য। এ জন্য সৌদির উচ্চপর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল। সালমান এফ রহমানের কার্যালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সালমান এফ রহমান বলেন, বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরব তৈরি পোশাক, চামড়াজাত পণ্য, প্লাস্টিক পণ্য, হিমায়িত পণ্য ও ওষুধ আমদানি করে। কিন্তু এর বাইরে এমন আরও অনেক পণ্য বাংলাদেশ রপ্তানি করে, সৌদি আরবে যেগুলোর চাহিদা রয়েছে। সৌদি আরব বাংলাদেশ থেকে হালাল মাংস আমদানি করতে পারে। এ জন্য তিনি বাংলাদেশের ১৩৭টি পণ্যে শুল্কমুক্ত প্রবেশ সুবিধা চান।
প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, সৌদি আরব বাংলাদেশের ঢাকা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ এবং কপবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিনিয়োগ করতে পারে। তিনি আইপিএফ থেকে এ বিনিয়োগ আশা করেন। এ ছাড়া সৌদিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ব্যবসা করার সুযোগ ও সহায়তা দেওয়ার অনুরোধ করেন।
সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী সালমান এফ রহমানের প্রস্তাবে ইতিবাচক মনোভাব দেখান। তিনি বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখিয়ে বলেন, পিপিপি কার্যকরে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, প্রবাসীদের ব্যবসা করার জন্য সৌদি সরকার সুযোগ দিয়েছে। এ জন্য তাদের ব্যবসা নিবন্ধন করতে হবে।

ভার্চুয়াল বৈঠকে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন, পিপিপি কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা আফরোজ এবং সৌদি আরবে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি উপস্থিত ছিলেন।