চিত্রনায়িকা পরীমণির ব্যবহৃত গাড়ি, মোবাইল, ল্যাপটপসহ জব্দ করা ১৬টি আলামত তাকে ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পরিদর্শক কাজী মোস্তাফা কামালকে জব্দ তালিকায় থাকা আলামতগুলো ফেরত দিতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদারের আদালত এ আদেশ দেন।

গাড়ি মোবাইল ফিরে পেতে দুপুরে আদালতে যাচ্ছেন পরীমণি

পরীমণির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সৌরভী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আদালতে মামলার তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি পুলিশ দুটি জব্দ তালিকার মোট ১৬টি আলামত পরীমণিকে ফেরত দেওয়ার সুপারিশসহ একটি প্রতিবেদন দাখিল করে।

প্রতিবেদনে তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, যদি পরীমণিকে তার জব্দকরা আলামত ফেরত দেয়া হয় সে ক্ষেত্রে মামলার তদন্তে কোনো বিঘ্ন ঘটবে না।

পরীমণির গাড়িসহ সব জিনিসপত্র ফেরত দিতে চায় সিআইডি 

এর আগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সৌরভী পরীমণির ব্যবহৃত সাদা রঙের একটি গাড়ি, মোবাইল ও ল্যাপটপসহ অন্যান্য জব্দ করা মালামাল ফেরত চেয়ে আদালতে আবেদন করেন।  আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক তদন্ত কর্মকর্তাকে বিআরটিএ থেকে গাড়ির সঠিক মালিকানা যাচাই এবং অন্যান্য জব্দ করা আলামতের বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। 

প্রসঙ্গত, মাদক মামলায় জামিনে আছেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। জব্দ করা গাড়িসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ফেরত চেয়ে আদালতে দাখিল করা আবেদনে পরীমণি বলেছেন, তার বাসায় অভিযান চালিয়ে অনেক কিছুই নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গাড়ির কাগজপত্রও তার কাছে নেই। ফলে এখন আদালতে জমা দেওয়ার মতো কোনো কাগজপত্র তার কাছে নেই।

সিনেমার পর্দায় জবাব দেব: সংবাদ সম্মেলনে পরীমণি

আদালতে এ সময় পরীমনির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত বলেন, পরীমণির সাদা রঙের গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। গাড়ির ভেতর মালিকানাসংক্রান্ত কাগজপত্র ছিল। গাড়িটি নিয়ে যাওয়ায় কোনো কাগজপত্র পরীমনির কাছে নেই। এ জন্য গাড়ির মালিকানাসংক্রান্ত কাগজপত্র আদালতে জমা দেওয়ার কথা থাকলেও তা জমা দেওয়া সম্ভব হয়নি। 

নীলাঞ্জনা রিফাত আদালতে আরও বলেন, পরীমণির আইপ্যাড, মোবাইল ফোনসহ অন্যান্য জিনিসপত্রও (আলামত) জব্দ করা হয়েছে। এসব প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র না থাকায় তিনি এখন নানান সমস্যায় পড়ছেন। বিশেষ করে গাড়ি না থাকায় তিনি নিরাপত্তা–হুমকির মধ্যে আছেন। মানবিক কারণে যেকোনো শর্তে তার জব্দ করা গাড়িটা ফেরত দেওয়ার আরজি জানান তিনি।