সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পাইলটের দক্ষতায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটের ৬৭ যাত্রী। বুধবার ঢাকা থেকে উড্ডয়ন করে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণের সময় এমন ঘটনা ঘটে।

সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিটে 'ঠছ-৯৬৭' ফ্লাইটটি যখন রানওয়ে স্পর্শ করল, ঠিক তখন প্লেনের সামনের চাকা ফেটে যায়। নোজ হুইল বের হওয়ার উপক্রম হয়। রানওয়েতে থেমে যায় প্লেনটি। যাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। কিন্তু সেই বিপদ মুহূর্তের মধ্যেই কাটিয়ে নিরাপদে প্লেনটিকে নিরাপদে অবতরণ করাতে সক্ষম হন পাইলট। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পান প্লেনটিতে থাকা ৬৭ যাত্রী।

প্লেনটি থামার আগে প্রচণ্ড ঝাঁকুনি খাওয়ায় যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে কয়েক যাত্রী সামান্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে প্লেনটির যাত্রী আজিজুর রহমান দুলু বলেন, আমাদের কারও কোনো ক্ষতি হয়নি। সবাই নিরাপদে নামতে পেরেছি।

এ ঘটনার পর বিমানবন্দরের রানওয়েতে দুর্ঘটনাকবলিত প্লেনটি আটকে থাকায় ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ হয়ে যায়। এতে ইউএস বাংলার সৈয়দপুরগামী একটি ফ্লাইট ঢাকা থেকে আর উড্ডয়ন করেনি।

সৈয়দপুর বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সুপল্লব কুমার ঘোষ জানান, প্লেনের যাত্রীরা নিরাপদে নেমে চলে যেতে পেরেছেন। চাকা মেরামতের কাজ চলছে। এছাড়া প্লেনের আর কোনো ক্ষতি হয়নি বলেও জানা গেছে।

নভোএয়ারের হেড অব মার্কেটিং অ্যান্ড সেলস মেজবাউল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ক্যাপ্টেন দক্ষতার সঙ্গে প্লেনটি নামিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়েছেন। বড় কোনো সমস্যা হয়নি। সবাই নিরাপদে অবতরণ করেন।