ফার্নিচার শিল্পে 'অগমেন্টেড রিয়েলিটি'র (এআর) ব্যবহার একটি বিপ্লবী সূচনা। দেশে  প্রথমবারের মতো ফার্নিচার ব্র্যান্ড ইশো এই প্রযুক্তির সঙ্গে গ্রাহকদের পরিচিত করতে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে ইশো শিগগিরই স্থানীয় শিল্পে পরিবর্তন আনার আশা করছে।

এআর টেকনোলজির মাধ্যমে বাস্তব পটভূমিতে অ্যানিমেটেড অবজেক্ট বসিয়ে দেখা সম্ভব হয়। স্মার্ট ডিভাইসে ইশোর এআর টেকনোলজির মাধ্যমে গ্রাহকরা আসবাবের প্রতিটি অংশের থ্রিডি মডেল দেখতে পাবেন। ফলে নির্দিষ্ট আসবাবটি গ্রাহকদের ঘরের নির্ধারিত স্থানে রাখলে সুন্দর দেখাবে কিনা তা বোঝা যাবে। মূলত এটি ‘ট্রায়াল অ্যান্ড ভিউ’-এর একটি ডিজিটাল মাধ্যম। এআর টেকনোলজি গ্রাহককে পণ্য ক্রয়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণে সহায়তা করে। গ্রাহকরা আসবাবপত্র ক্রয় সম্পর্কে যথাযথ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ইশোর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রায়ানা হোসেন এ বিষয়ে বলেন, 'দেশের আসবাব শিল্পে এআর টেকনোলজির অবশ্যই গেম-চেঞ্জার হবে। ধীরে ধীরে আমাদের পণ্য  প্রযুক্তি-সচেতন ও নতুন প্রজন্মের ক্রেতাদের কাছে তুলে ধরা হবে।' সংবাদ বিজ্ঞপ্তি