এখন থেকে গ্রাহকরা তাদের যে কোনো ব্র্যান্ডের পুরনো মোটরসাইকেল শর্তসাপেক্ষে বিক্রি করে বা বদলে বাজাজ ব্র্যান্ডের নতুন মোটরসাইকেল নিতে পারবেন। আর দেশে প্রথম এই সেবা দেবে রি-কমার্স প্ল্যাটফর্ম সোয়াপ। এ লক্ষ্যে সম্প্রতি দেশে বাজাজ মোটরসাইকেলের একমাত্র পরিবেশক উত্তরা মোটর্স-এর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সোয়াপ। এ চুক্তির আওতায় গ্রাহকরা সোয়াপের মাধ্যমে এখন যে কোনো মোটরসাইকেল অদল-বদল কিংবা বিক্রির সুবিধা পাবে উত্তরা মোটর্স-এর ডিলার আউটলেটগুলোতে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তরা মোটর্স লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দিলীপ ব্যানার্জী, প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা শাহদাত হোসেন এবং ব্র্যান্ড অ্যান্ড পি আর সহকারী মহাব্যবস্থাপক উৎপল সাহা, সোয়াপের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সোয়াপের চিফ অপারেটিং অফিসার তন্ময় সাহা, হেড অব বিজনেস আহনাফ মহসিন, হেড অব বি টুবি অ্যান্ড সেলস আরিফ আল মামনু চৌধুরী এবং ব্র্যান্ড অ্যান্ড পার্টনারশিপ ম্যানেজার লায়লা রহমান।

সোয়াপের সিইও পারভেজ হোসাইন বলেন, ‘এই চুক্তির মাধ্যমে সারাদেশে সোয়াপ উত্তরা মোটর্স-এর এক্সচেঞ্জ পার্টনার হিসেবে গ্রাহকদের যে কোনো পুরনো বাইক বিনিময়ের সুবিধা প্রদান করবে। সুবিধাটি দিতে উত্তরা মোটর্স-এর বিভিন্ন ডিলার আউটলেটে সোয়াপ এর প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। সোয়াপ ২৪ ঘষণ্টারও কম সময়ের মধ্যে গ্রাহকদের দোরগোড়া থেকে পুরনো পণ্যের (যেমন: ব্যবহৃত মোটরসাইকেল) বিক্রয় নিশ্চিত করার সঙ্গে সঙ্গে তাদের সুবিধা এবং নিরাপত্তা উভয়ই প্রদান করেন। এই অংশিদারিত্বের মাধ্যমে সোয়াপ তার অফলাইন উপস্থিতি প্রসারিত করতে পেরে রোমাঞ্চিত যা আরও বেশি গ্রাহকদের সোয়াপ থেকে সুবিধামত সেবা নিতে সাহায্য করবে ৷’

তিনি বলেন, ‘গ্রাহকদের কোনো ঝামেলা ছাড়াই দ্রুততম সময়ে তাদের পুরনো বাইক বিক্রয় এবং নতুন বাজাজ বাইক কেনার সুযোগ করে দিতে উত্তরা মোটর্স-এর পার্টনার হতে পেরে আমরা আনন্দিত।’ উত্তরা মোটর্স–এর সিইও দিলীপ ব্যানার্জী বলেন, ‘সোয়াপের উদ্যোগে গ্রাহকদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল বিনিময়ের মাধ্যমে ক্রেতাদের সন্তুষ্টি অর্জনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।’

উল্লেখ্য, উত্তরা মোটর্স বাংলাদেশের মোটরসাইকেলের বাজারের সিংহভাগ দখল করে আছে এবং বাংলাদেশে টু-হুইলার বাজারের শীর্ষস্থানীয় ভারতীয় জায়ান্ট বাজাজ অটোর একমাত্র পরিবেশক। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।