এফবিসিসিআইর সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেছেন, তৈরি পোশাক খাতের পর রপ্তানিতে যেসব সম্ভাবনাময় খাত রয়েছে, তার মধ্যে জুয়েলারি শিল্প অন্যতম। তবে এ খাতে সাফল্য পেতে হলে সরকারের নীতি সহায়তা ও জুয়েলারি খাতে দক্ষতা বাড়াতে হবে।

গতকাল বুধবার রাজধানীর লা মেরিডিয়েন হোটেলে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। সমিতির ২০২১-২৩ মেয়াদে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নতুন কমিটি ৩৫ সদস্যবিশিষ্ট। পুরো কমিটি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বাজুসের সাবেক সভাপতি এনামুল হক খান দোলন দায়িত্ব হস্তান্তর করেন নতুন কমিটির সভাপতি ও বসুন্ধরা গ্রুপের গোল্ড রিফাইনারির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের কাছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, জুয়েলারি খাতকে রপ্তানি খাতে রূপান্তর করতে হলে প্রযুক্তিগত উন্নয়ন করতে হবে। স্বর্ণের গহনা তৈরির কারিগরদের এবং মধ্যম সারির মানবসম্পদকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। দায়িত্ব গ্রহণের পর সায়েম সোবহান বলেন, নতুন কমিটি এই শিল্পের উন্নয়নে কাজ করবে। অচিরেই জুয়েলারি পণ্য রপ্তানি হবে। রপ্তানি বাড়াতে নতুন কমিটি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেবে।