এখন থেকে ৫০ লাখ ও তার বেশি টাকার মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ই-পেমেন্ট বা এ-চালানের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।

রোববার জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এক আদেশে ভ্যাট নিবন্ধন রয়েছে এমন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জন্য এ নিয়ম জারি করেছে। 

বিভিন্ন সরকারি রাজস্ব ও সেবার ফি অনলাইনে জমা দিতে চালু করা হয়েছে স্বয়ংক্রীয় চালান পদ্ধতি, যাকে এ-চালান বলা হয়। এ ব্যবস্থায় কর পরিশোধকারীকে ব্যাংকে যেতে হয় না। অনলাইন ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে কর পরিশোধ করা যায়। ব্যাংকের কাউন্টারে গিয়েও এ-চালানে রাজস্ব জমা করা যায়। ইতোমধ্যে ৪০টি ব্যাংক থেকে এ-চালানে অর্থ পরিশোধ করা যাচ্ছে।  

এনবিআরের আদেশে বলা হয়েছে, অনলাইন নির্ভর আধুনিক ভ্যাট ব্যবস্থা গড়ে তোলার কার্যক্রম চলমান। ই-পেমেন্ট বা এ-চালান ব্যবহার করে ব্যবসায়ীরা দ্রুত ও নির্বিঘ্নে রাজস্ব পরিশোধ করতে পারবেন। ব্যবসায়ীদের পরিশোধ করা রাজস্ব সরাসরি সরকারি কোষাগারে জমা নিশ্চিত হবে। ১ জানুয়ারি থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর হয়েছে।

মোট রাজস্বের বড় অংশই আসে স্থানীয় পর্যায়ের ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক থেকে। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক থেকে এক লাখ ২৮ হাজার ৮৭৩ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে, যা মোট রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রার ৩৯ শতাংশ।