রংপুরে নার্সারি ব্যবসায়ীকে অপহরণের ঘটনায় তিন জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। রোববার সন্ধ্যায় রংপুর র‌্যাব-১৩’র পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের ফুলবাড়ি চওড়া গ্রামের বাচ্চু চন্দ্র (৫২), স্বপন রায় (২২) ও খাদিজা বেগম (৩৭)।

রংপুর র‌্যাব-১৩’র সহকারী পরিচালক মাহমুদ বশির আহমেদ জানান, খুলনা খালিশপুর গোয়ালখালীতে বিশুদ্ধ এগ্রো নার্সারির মাধ্যমে চারা গাছ উৎপাদন ও বিক্রি করে আসছিলেন নার্সারি ব্যবসায়ী খন্দকার শাহাবুল ইসলাম (৫৭) ও মো. ফারুক হোসেন (৩২)। শাহাবুল ফেসবুকে একটি পেজ খুলে ওই নার্সারির চারা বিক্রি করে আসছিলেন। সম্প্রতি অপহরণকারী চক্রের সদস্য গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিরত ইউনিয়নের ফুলবাড়ি চওড়া গ্রামের শাকিবুল ও সাহাবুদ্দিন চারা কেনার উদ্দেশে ওই নার্সারিতে যায়। তারা চারাগুলো পছন্দ করে তাদের বাগান দেখতে শাহাবুল ও ফারুককে রংপুরে আসতে বলেন। পরে নার্সারি দেখতে  গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টায় খুলনা থেকে বাসে করে রংপুর নগরীর মর্ডান মোড়ে আসেন তারা। 

এরপর অপহরণকারী চক্রের সদস্যরা তাদের মোটরসাইকেলে করে গঙ্গাচড়া ফুলবাড়ি চওড়া গ্রামের রুহুল আমিনের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে শাহাবুল ও ফারুকের চোখ, হাত-পা বেঁধে একদিন আটকে রাখে এবং তাদের কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। টাকা না দিলে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।

বিষয়টি জানতে পেরে র‌্যাবের একটি দল পরদিন রাতে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণের সঙ্গে জড়িত তিন জনকে আটক করে এবং অপহৃতদের অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে অপহরণকারী দলের অন্য সদস্যরা পালিয়ে যায়। অভিযানে র‌্যাব রুহুল আমিনের বাড়িতে তল্লাশি করে একটি দেশি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি, তিনটি তরবারি, একটি মাইক্রোবাস ও দুটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দীর্ঘদিন ধরে অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।