বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিটি অবদানের তথ্য সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে। বাংলাদেশকে একটি প্রকৃত কল্যাণমুখী রাষ্ট্রে রূপান্তরিত করার জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যার সব অবদান সবাইকে জানাতে হবে । জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথাগুলো দেশের সব মানুষকে জানাতে হবে । শুধু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এই প্রচারণা চালালে চলবে না, এ দেশের প্রতিটি নাগরিক শেখ হাসিনার উন্নয়নের সুবিধাভোগী । শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা প্রচার করা তাদের সবার নৈতিক দায়িত্ব ।

মঙ্গলবার তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির এক ভার্চুয়াল সভায় তিনি এসব কথা বলেন ।

ড. সেলিম বলেন,  আওয়ামী লীগের যেসব নেতা সাংগঠনিক সফরে দেশের বিভিন্ন জেলা- উপজেলায় যান, যেসব নেতা এবং বুদ্ধিজীবী বিভিন্ন টেলিভিশনের টকশো ও সেমিনার- কনফারেন্সে যান, তাদের জন্য তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির পক্ষ থেকে আমরা শেখ হাসিনার নানা উন্নয়ন ও অবদানের তথ্য সম্বলিত খসড়া প্রস্তুত করছি ।

তিনি বলেন, আমি সমালোচকদের বলবো, আপনারা গ্রামে গিয়ে দেখে আসেন কেন আওয়ামী লীগ ভোট পাচ্ছে । সাধারণ মানুষের সমর্থন আওয়ামী লীগের পক্ষে দিন দিন বাড়ছে।

সভায় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, তথ্য ও গবেষণা উপকমিটি ইতোমধ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জননেত্রী শেখ  হাসিনার নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড প্রচারে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে । এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে ।

সভায় আরও বক্তব্য দেন— উপকমিটির সদস্য প্রফেসর ড. শামসুর রহমান, প্রফেসর ড. জাহানারা আরজু, ব্যারিস্টার সৌমিত্র সর্দার, নাজমুল তুহিন, আরিফুল ইসলাম টিপু, মোয়াজ্জেম হোসেন কাওসার, নুরুল ইসলাম মজুমদার, মনিরুজ্জামান শেখ, আবুল ফজল রাজু, রুবাইয়াৎ রাকিব, সিতুল মুনা, আরিফুল ইসলাম টিপু, দিলরুবা ইয়াসমিন, আবু সায়ীদ খান, ড. শবনম জাহান, অ্যাডভোকেট শওকত আলী পাটোয়ারী, ফাহিম শাহরিয়ার প্রমুখ ।