করোনা পরিস্থিতি যে পর্যায়েই যাক না কেন, ব্যাংকিং লেনদেন ব্যবস্থা সচল রাখতে হবে। সব বাণিজ্যিক ব্যাংককে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। 

বুধবার এ নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস বিভাগ থেকে সার্কুলার জারি করে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রয়োজনে অর্ধেক জনবলে কার্যক্রম চালু রাখতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছিল। নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যে কোনো পরিস্থিতিতে সার্বক্ষণিক ও নিরবচ্ছিন্ন অর্থ উত্তোলন বা পরিশোধ সেবা নিশ্চিত করতে হবে। এটা নিশ্চিত করতে ব্যাংকগুলোকে কার্যকর বিজনেস কন্টিনিউটি প্ল্যান বা ব্যবসার ধারাবাহিকতা পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে এবং বাস্তবায়নের জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে।

একই সঙ্গে করোনা সংক্রমণ কমাতে সরাসরি শাখায় উপস্থিত হয়ে ব্যাংকিং সেবা নেওয়ার বিষয়ে গ্রাহকদের নিরুৎসাহিত করতে ব্যাংকগুলোকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সার্কুলারে বলা হয়েছে, গ্রাহকরা যাতে মোবাইল অ্যাপ, ই-ওয়ালেট ব্যবহার করেন সেজন্য উৎসাহমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। এর বাইরে সরাসরি কার্ডের (ডেবিট বা ক্রেডিট) ব্যবহার ছাড়া শুধু কার্ডের নাম্বার দিয়ে লেনদেন (সিএনপি) সম্পন্ন করতে পারেন বা স্পর্শ ছাড়া কার্ডের ব্যবহার এনএফসি (নেওয়ার ফিল্ড কমিউনিকেশনস) ব্যবস্থা প্রচলনের পাশাপাশি এমন সেবা গ্রহণে গ্রাহকদের উৎসাহিত করতে হবে।

ইলেকট্রনিক ব্যবস্থায় লেনদেন বাড়বে তাই সাইবার আক্রমণের বিষয়েও ব্যাংকগুলোকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ব্যাংকের সব পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচতে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের বিষয়েও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।