পবিত্র রমজান মাসে বাজার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য ৪৬ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি-এফবিসিসিআই। 

এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোস্তফা আজাদ চৌধুরীকে প্রধান করে এই বাজার কমিটি গঠন করা হয়েছে। সরকারের পাশাপাশি বাজার মনিটর করার জন্য এফবিসিসিআইয়ের এ কমিটি কাজ করবে।

শনিবার রমজান উপলক্ষে এফবিসিসিআইয়ের আয়োজনে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী মজুত, আমদানি, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতিবিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভা শেষে কমিটি গঠনের কথা জানান এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘সরকার কর কমিয়ে মানুষকে সহনীয় দামে পণ্য দিতে চায়। কর কমল কিন্তু এনবিআরের কেরানিগিরির কারণে শুল্ক ও ভ্যাটছাড়ের সুফল এখনও ব্যবসায়ীরা পাননি। রমজানে সুযোগ নিতে চান না ব্যবসায়ীরা।’

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘৪০ শতাংশের মতো সারা বিশ্বে দাম বাড়ছে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে ১০০ শতাংশ দাম বাড়ছে। অনেক কোম্পানি ভুগছে। এমন পরিস্থিতিতে ঋণপত্রের বিপরীতে ঋণসীমা কমপক্ষে ৩২ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়ার প্রস্তাব করে বৃহস্পতিবার ব্যাংকগুলোকে চিঠি দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। রোজা উপলক্ষে সরকারকে অনুরোধ করা হয়েছিল ট্যাক্স সমন্বয় করা যায় কি না, সরকার সেটা করছে। কিন্তু সেটার প্রতিফলন এখন বাজারে চান ব্যবসায়ীরা।’

জসিম উদ্দিন বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে যে প্রতিজ্ঞা ব্যবসায়ীরা করেছেন, যেমন- ভোজ্যতেল, চিনি, চালের মতো পণ্যের দাম সহনীয় থাকবে, সেটি রক্ষা করা উচিত। উৎসব এলে দাম না বাড়িয়ে কমানো উচিত, ব্যবসায়ীরা কেন তা করতে পারে না?’