পোশাক কারখানায় নারী শ্রমিকদের ব্যক্তিগত অগ্রগতি ও পেশাগত উৎকর্ষ বৃদ্ধিতে সফলতা অর্জন করায় বিশ্বে পোশাক শিল্পের সম্মানজনক গুডেরা চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড-২০২১ পেলো বাংলাদেশে পোশাক শিল্পের অন্যতম শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হা-মীম গ্রুপ। শনিবার দুপুরে আশুলিয়ার নরসিংহপুরে দ্যাটস ইট স্পোর্টস ওয়্যার লিমিটেড পোশাক কারখানায় জমকালো এক অনুষ্ঠানে হা- মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ. কে. আজাদের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার তুলে দেন পোশাক শিল্পে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রেতা প্রতিষ্ঠান গ্যাপ-এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি পিচ প্রোগ্রামের ম্যানেজার লীনা নাসরিন।

এ সময় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আজিম গ্রুপের চেয়ারম্যান ফজলুল আজিম ও তার মেয়ে ফারজিন আজিম ও জামাতা অ্যাডাম ইলডিরিম এবং হা-মীম গ্রুপের ডিমডি কর্নেল (অবঃ) দেলোয়ার হোসেন, পরিচালক সাজিদ আজাদ, আশুলিয়া জোনের সিনিয়র নির্বাহী পরিচালক ব্রিঃ (অবঃ) মো. আব্দুল মঈন, জেনারেল ম্যানেজার মাসুদুর রহমান এবং গ্যাপ এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি প্রোগ্রাম ম্যানেজার লীনা নাসরিন ও প্রোগ্রাম ম্যানেজার ট্রেনিং অ্যান্ড সাসটেনিবিলিটি তাহমিনা জেসমিন।

অনুষ্ঠানে ফজলুল আজিম বলেন, ‘পোশাক শিল্পে পন্যের গুনগত মান যাচাইয়ের মধ্য দিয়ে হা-মীম গ্রুপ প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এ অর্জনে আমরা গর্বিত। সারা বিশ্বে হা-মীম গ্রুপ উৎপাদিত পোশাকের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশের পোশাক কারখানা গুলোর মধ্যে হা-মীম গ্রুপ প্রথম স্থান অর্জন শ্রমিকদের দক্ষতা আর ঘামঝরা নিরলস পরিশ্রমেরই ফসল। এ অর্জনের পেছনে যার অবদান সবচেয়ে বেমি তিনি হচ্ছেন হা-মীম গ্রুপের কর্ণধার প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক একে আজাদ। তার মেধা, প্রজ্ঞা, পরিশ্রম আর সাহসীকতায় দেশের পোশাক শিল্প বিশ্ববাজারে স্থান করে নিয়েছে।’

হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ. কে. আজাদ বলেন, ‘এই অ্যাওয়ার্ড হা-মীম গ্রুপের প্রতিটি শ্রমিককে কাজে উৎসাহ ও প্রেরণা দেবে। এ সফলতা পোশাক কারখানার সঙ্গে সম্পৃক্ত সব শ্রমিক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরই পরিশ্রমের ফসল। এ অর্জন আমাদের ধরে রাখতে হবে। আমার জীবদ্দশায় যেন হা-মীম গ্রুপের এমন অর্জন আরও দেখে যেতে পারি গ্রুপের সকলের কাছেই আমার এ প্রত্যাশা রইল।’ তিনি আরও বলেন, ‘পোশাক কারখানায় যে শ্রমিকেরা আজ কাজ করছেন তার সন্তানরা যেন শ্রমিক না হয়ে অফিসার হয়ে কাজ করতে পারে। সেই জন্য সন্তানদেরকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে।’

ডিএমডি কর্নেল (অবঃ) দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক একে আজাদের যোগ্য নেতৃত্ব আর সঠিক দিক নির্দেশনায় হা-মীম গ্রুপ পোশাক শিল্পে এ অবস্থায় এসেছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতা অর্জন হয়েছে।’

পরিচালক সাজিদ আজাদ বলেন, ‘গুডেরা চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড হা-মীম গ্রুপের সকলকে কাজে আরও উৎসাহিত করবে। এ অর্জনে হা-মীম গ্রুপের সকলেই গর্বিত।’

হা-মীম গ্রুপের নারী শ্রমিক শিল্পী আক্তার বলেন, ‘এই অ্যাওয়ার্ড পাওয়ায় আমরা নারী শ্রমিকেরা সকলেই খুব খুশি হয়েছি। হা-মীমের সকল কারখানায় নারীদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ রয়েছে বিধায় এখানে নারী শ্রমিকরা নিরাপদে কাজ করতে পারছে।’

শুধু শিল্পী নয়, নারী শ্রমিক মানসুরা, রুনা, সাবিকুর নাহার ও রানী সহ অনেকে বলেন, অ্যাওয়ার্ডটি নারী শ্রমিকদের কাজে আরও উৎসাহ যোগাবে।

অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হা-মীম গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক মেজর (অবঃ) মো. বাশার, জেনারেল ম্যানেজার লোকমান হোসেন, স্বপন কুমার গুহ, মজুমদার কাজী রাফি উদ্দিন সহ কারখানা অন্যান্য নির্বাহী পরিচালক ও ম্যানেজারগণ।