তৈরি পোশাক খাতের টেকসই সরবরাহ চেইন নিরবচ্ছিন্ন রাখতে ন্যায্য দর বজায় রাখতে ক্রেতাদের ভূমিকা সন্তোষজনক নয় বল মন্তব্য এসেছে বাংলাদেশ অ্যাপারেল ফোরাম সম্মেলনের অধিবেশনে।

তৈরি পোশাক খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পোশাকে ন্যায্য দর পেতে ব্র্যান্ড, ক্রেতা প্রতিষ্ঠান ও উন্নয়ন সহযোগিদের এ বিষয়ে আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা প্রয়োজন।

মঙ্গলবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় ডেনিম প্রদর্শনীর পাশাপাশি বাংলাদেশ অ্যাপারেল ফোরাম সম্মেলনের বিভিন্ন অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। 

পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতি -বিজিএমইএর সহযোগিতায় বাংলাদেশ অ্যাপারেল এক্সচেঞ্জ (বিএই) এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে। 

অ্যাপারেল ফোরামের সম্মেলনে দেশি-বিদেশি ৫০ জন বক্তা এবং ২০টি দেশ থেকে সবুজ প্রযুক্তির পণ্য ও সেবা প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নিয়েছে। 

সকালে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এবং বিজিএমইএ এর সাবেক সভাপতি মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, স্থিতিশীল পোশাক খাতের স্বার্থে ন্যায ও স্থিতিশীল মূল্য দরকার।

নেদারল্যান্ডসে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম রিয়াজ হামিদুল্লাহ বলেন, শোভন কাজের পরিবেশ নিশ্চিত করতে ক্রেতাদের নায্য দামও নিশ্চিত করতে হবে।

বিকেএমইএর নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, ক্রেতা টেকসই শ্রম খাতের কথা বললেও পোশাকের ন্যায্য দাম দেয় না। এটা টেকসই পোশাক খাতের জন্য বড় বাধা। 

অ্যাপারেল ফোরামের সমাপনী অধিবেশেন প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি। 

তিনি বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর তৈরি পোশাক কারখানার কর্মপরিবেশ এবং শ্রম অধিকার ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। এখন প্রতিটি কারখানায় সেফটি কমিটি আছে, ট্রেড ইউনিয়ন বাধ্যতামূলকসহ দেশের শ্রম আইন বিশ্বমানের হয়েছে। এর সুফল পাচ্ছে পোশাক খাত। 

চলতি অর্থবছরের দুই মাস আগেই বাংলাদেশ ৪৩ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি লক্ষ্য মাত্রা অর্জন করেছে বলে অধিবেশনে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি বলেন, টেকসই সরবরাহ চেইনের স্বার্থে টেকসই দর নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য ক্রেতা, ব্র্যান্ডসহ আর্ন্তজাতিক উন্নয়ন সহযোগীদের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকায় আসতে হবে। 

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, বাংলাদেশের পোশাক কারখানাগুলো শুধুমাত্র নিরাপদই নয়, বরং সেগুলো আরও গতিশীল, আধুনিক, জ্বালানি সাশ্রয়ী এবং পরিবেশবান্ধব হয়ে উঠেছে। সর্বোচ্চ সংখ্যক সবুজ কারখানা এখন বাংলাদেশে। 

এবারের ডেনিম প্রদাশনীতে দেশি- বিদেশি বিখ্যাত ৭৯টি প্রতিষ্ঠান তাদের ডেনিম প্রদর্শন করছে। প্রদর্শনীটি বুধবার শেষ হবে।

সম্মেলনে পাঁচটি পৃথক অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এসব অধিবেশনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্যে রাখেন বাংলাদেশে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াটলে, ইউরোপীয় কমিশনের সামাজিক অর্থনীতি ও সৃজনশীল শিল্প ইউনিটের প্রধান আন্না আথানাসোপোলু।