ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান বা পর্ষদের সহায়ক কোনো কমিটির চেয়ারম্যান ব্যাংকের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি বা ফাউন্ডেশনের পরিচালনায় থাকতে পারবেন না বলে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। 

পরিচালক হিসেবে কেউ এক বছর দায়িত্ব পালনের পর আর ওই ব্যাংকের কোনো পদে নিয়োগ দেওয়া যাবে না।  এ ধরণের কেউ থাকলে তাকে পদত্যাগ করতে হবে। 

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ব্যাংকের পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় স্বার্থের সংঘাত পরিহার, নিরপেক্ষতা, পেশাগত মান ও সুশাসন নিশ্চিত করতে ব্যাংক কোম্পানি আইনের ২৩ (১) (ক) ধারায় কেউ ব্যাংকের পরিচালক হলে একই সময়ে তিনি অন্য ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা বীমা কোম্পানির পরিচালক হওয়ার ওপর বিধিনিষেধ রয়েছে।

ব্যাংকের পরিচালনায় শৃঙ্খলা ও সুশাসন নিশ্চিত করতে গত বছরের ১২ মে অপর এক নির্দেশনার মাধ্যমে আরও কিছু বিধিনিষেধ দেওয়া হয়। সুষ্ঠুভাবে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পরিচালনা পর্ষদ এবং ব্যবস্থাপনা কর্তৃক নিজ-নিজ দায়িত্ব পালনে যথাযথ ভূমিকা পালন আবশ্যক। ফলে ব্যাংক পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সৃষ্ট প্রতিবন্ধকতা পরিহার হওয়া বাঞ্ছনীয়।

এতে আরও বলা হয়েছে, কোনো ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান বা পর্ষদ সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত সহায়ক কমিটি যথা- নির্বাহী কমিটি, অডিট কমিটি ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত ব্যক্তি সাবসিডিয়ারি কোম্পানি বা ব্যাংকের অর্থায়নে গঠিত ও পরিচালিত প্রতিষ্ঠান বা ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পর্ষদ বা গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান, পরিচালক বা সদস্য হতে পারবেন না। কেউ এরকম থাকলে আগামী ৩০ জুনের মধ্যে পদত্যাগ করতে হবে। 

এছাড়া কোনো ব্যক্তি ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডার পরিচালক, মনোনীত, প্রতিনিধি বা স্বতন্ত্র পরিচালক হিসেবে নূ্যনতম এক বছর দায়িত্ব পালন করলে মেয়াদপূর্তি, অবসর বা অব্যাহতির পর আর ওই ব্যাংকের নিয়মিত বা চুক্তিভিত্তিক পদে নিযুক্ত হতে পারবেন না। এরকম কাউকে নিয়োগ দেওয়া হলে আগামী ৩১ জুলাইর মধ্যে অব্যাহতি দিতে হবে।