টানা তিন দিনের সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির পর আজ সোমবার ফের লেনদেন শুরু হয়েছে শেয়ারবাজারে। গত সপ্তাহের ধারাবাহিকতায় আজও ব্যাপক দরপতন চলছে শেয়ারবাজারে।

 দুপুর সাড়ে ১২টায় দিনের লেনদেনের প্রথম আড়াই ঘণ্টা শেষে প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্সের ১০৮ পয়েন্ট পতন হয়েছিল। সূচক নেমেছিল ৬৪৫৬ পয়েন্টে। সূচক পতনের হার ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ।

সূচকের এমন পতনের কারণ ছিল লেনদেনে আসা ৩৭৯ শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৩৪১টিই দর হারিয়ে কেনাবেচা হচ্ছিল, যা লেনদেনে আসা মোট শেয়ারের প্রায় ৯০ শতাংশ।

বিপরীতে মাত্র ২৬টি দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল। দর অপরিবর্তিত অবস্থায় কেনাবেচা হচ্ছিল ১২টি।

সূচকের পতন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, একা বেক্সিমকো লিমিটেডের শেয়ারের দরপতনেই সূচক হারিয়েছে ১১ পয়েন্টের বেশি। শেয়ারটির দর ১৪৩ টাকা ৬০ পয়সা থেকে কমে এ সময় ১৩৮ টাকা ৫০ পয়সায় কেনাবেচা হচ্ছিল।

এর বাইরে ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকোর কারণে প্রায় ৭ পয়েন্ট, স্কয়ার ফার্মার কারণে সাড়ে ৩ পয়েন্ট, বেক্সিমকো ফার্মার দরপতনে সোয়া ৩ পয়েন্ট, লাফার্জ-হোলসিমের দরপতনে ৩ পয়েন্টের বেশি হারিয়েছে ডিএসইএক্স সূচক।

বিপরীতে বিকন ফার্মার শেয়ারের দরবৃদ্ধি সূচকে প্রায় ৭পয়েন্ট যোগ করেছে।

কিন্তু প্রায় সব শেয়ারের দর পতন বাজারের অবস্থানে নাজুক করে তুলেছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কর্মকর্তারা জানান, চলতি দরপতনের কোনো কারণ তারা খুঁজে পাচ্ছেন না। কেউ কেউ শ্রীলঙ্কার আর্থিক সংকটের প্রভাব বলে মনে করছেন। আদতে বাংলাদেশের অবস্থা শ্রীলঙ্কার মত নয়, তেমনটি হওয়ার আশঙ্কারও অমূলক।

বাজার সংশ্লিষ্টরা জানান, বড় বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে নেই। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা দিক-ভ্রান্ত। প্রায় প্রতিটি শেয়ারের ক্রেতা যতটা, বিক্রেতা তার বহুগুন।

এদিকে কারসাজির একটি চক্র আজও তার নিজের নিয়ন্ত্রাধীন ২/৩টি শেয়ারের দর ধরে রাখতে ব্যাপক চেষ্টা চালাচ্ছে। এর বাইরে সিংহভাগ শেয়ারে বিক্রি চাপ অনেক বেশি।

ব্যাপক দরপতনের মধ্যেও গোল্ডেন হারভেস্ট এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ, এফএএস ফাইন্যান্স, ফু-ওয়াং সিরামিক, এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং কোম্পানির শেয়ারদর ৯ থেকে প্রায় ১০ শতাংশ দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছে।

বিপরীতে সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন দরে (৫ বা প্রায় ৫ শতাংশ দর হারিয়ে) কেনাবেচা হতে দেখা গেছে- এসিআই ফর্মুলেশনস, এপেক্স ফুড, এক্সেপ ফুটওয়্যার, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, বিডি কম, সিএনএটেক্স, ডেল্টা লাইফসহ অন্তত ৪০ শেয়ার।

লেনদেনের প্রথম আড়াই ঘণ্টায় ডিএসইতে ৫৫৫ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়।