শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, পণ্যের মান, ওজন এবং পরিমাপ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনকে (বিএসটিআই) আপসহীন হতে হবে। এ জন্য বিএসটিআইর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সততা এবং নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

রোববার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিএসটিআইর প্রধান কার্যালয়ের বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত 'ডিজিটাল যুগে পরিমাপ' শীর্ষক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। মন্ত্রী জানান, বিএসটিআইকে বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পণ্য পরীক্ষণ এবং ওজন ও পরিমাপে বিশ্বমানের সেবা নিশ্চিত করতে বিএসটিআইয়ে আরও ৮৯টি অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরি হচ্ছে।

বিএসটিআইর মহাপরিচালক মো. নজরুল আনোয়ারের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, শিল্পসচিব জাকিয়া সুলতানা এবং এফবিসিসিআইর সিনিয়র সহসভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন পরিচালক (মেট্রোলজি) মো. সাজ্জাদুল বারী।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, পণ্যের মান প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের পাশাপাশি নিম্নমানের পণ্য উৎপাদন-সরবরাহ এবং ওজনে কারচুপি রোধে বিএসটিআই নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ও সার্ভিল্যান্স কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

বিএসটিআইর কার্যক্রম অটোমেশনের আওতায় আনা হচ্ছে বলে জানান শিল্প সচিব। তিনি বলেন, বিএসটিআইর মানচিহ্ন ও লাইসেন্সের অনৈতিক ব্যবহার রোধে কিউআর কোড সংবলিত সফটওয়্যার প্রবর্তন করা হবে।

প্রতিটি স্থলবন্দরে বিএসটিআইর অফিস স্থাপনের প্রস্তাব দিয়ে মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেন, এ উদ্যোগ নেওয়া হলে আমদানি-রপ্তানি অনেক গতিশীল হবে।