চলতি অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) বাস্তবায়ন। গত জুলাই থেকে মে মাস পর্যন্ত এডিপির আওতায় থাকা বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে গড় বাস্তবায়নের হার প্রায় ৬৬ শতাংশ। আগের অর্থবছরের একই সময়ে যা ছিল ৫৯ শতাংশের কিছু কম।

মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) থেকে পাওয়া এডিপি বাস্তবায়নের তথ্য জানান পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। একনেক বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংযুক্ত হন তিনি। পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কক্ষে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগের সদস্য প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো বিভাগের সদস্য মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম, শিল্প ও শক্তি বিভাগের সদস্য এ কে এম ফজলুল হক, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য ড. কাউসার আহাম্মদ, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আইএমইডির সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী জানান, নানা ধরনের সমস্যার মধ্যেও চলতি অর্থবছরের ১১ মাসে এডিপি বাস্তবায়নের গতি ভালো। এটি এ মুহূর্তে একটি সুখবর। ১১ মাসে এডিপির আওতায় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় হয়েছে ১ লাখ ৪২ হাজার ৩৮৭ কোটি টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ১ লাখ ২২ হাজার ১৬১ কোটি টাকা।

উল্লেখ্য, চলতি এডিপিতে ১ হাজার ৮২৮টি প্রকল্প রয়েছে। সংশোধনের পর এডিপির আকার দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১৭ হাজার ১৭৫ কোটি টাকা। প্রায় প্রত্যেক অর্থবছরেই প্রথম দিকের তুলনায় শেষ দিকে এসে প্রকল্প বাস্তবায়নের হার বেশি হয়ে থাকে। এ বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি।