পদ্মা সেতু চালু হওয়ার ফলে দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি এক দশমিক পাঁচ শতাংশ হবে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে দক্ষিণবঙ্গের সঙ্গে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সাথে যোগাযোগ বাড়বে। এর ফলে শুধু দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নই নয়, সারা দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাদারীপুর জেলার শিবচরে কাঠালবাড়ি ঘাটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন।

তাজুল ইসলাম জানান, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রায় ১০-১৫ লাখ মানুষের সমাগম হবে। বিশাল এই জনসভায় আগত মানুষদের নিরাপত্তার পাশাপাশি সুপেয় পানির বন্দোবস্ত করবে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।

ইতোমধ্যে সাবমার্সিবল পাম্পসহ দুটি উৎপাদন নলকূপ স্থাপন, ১২টি জলাধার স্থাপনের মাধ্যমে ৫০০টি ট্যাপের মাধ্যমে চলমান পাইপড ওয়াটার সাপ্লাই স্থাপন করা হচ্ছে। গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের জন্য ৬০ হাজার বোতল পানি, ২০টি ভিআইপি টয়লেট এবং জনসাধারণের জন্য পাঁচশো টয়লেট স্থাপন করা হবে। এতে কাজ করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। 

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন জাতীয় সংসদের নুর-ই-আলম চৌধুরী, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী সেখ মোহাম্মদ মহসীন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান।