আব্দুল আজিজ পেশায় একজন কৃষক। কিন্তু ছোট বেলা থেকেই শখ করে পশু পালন করেন তিনি। এরই ধারাবাহিকতায় আজিজের পালন করা একটি গরুর ওজন দাঁড়িয়েছে প্রায় ১২৫০ কেজি। কিন্তু এতবড় গরু কিভাবে বিক্রি করবেন তা নিয়ে রীতিমতো দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছেন সিরাজগঞ্জের এই কৃষক।

এরই মধ্যে পরিচিত এক ব্যক্তি এসে আজিজকে জানালেন, ভালো নাম রাখলে গরু বিক্রি হয়। আজিজও হয়তো তার কথায় খানিকটা ভরসা খুঁজে পেলেন। তাই তেলুগু ভাষার জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘বাহুবলী’ নামেই নামকরণ করলেন নিজের পোষা গরুটির। ‘বাহুবলী’ বিক্রি করার জন্য আব্দুল আজিজ দাম হাকাচ্ছেন ১২ লাখ টাকা।

আব্দুল আজিজের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলায়। উল্লাপাড়ার পূর্বদেলুয়া গ্রামের এই কৃষক জানান, শখ করে পশু পালন করেন তিনি। ছোটবেলা থেকেই এভাবে পশু পালন করে আসছেন তিনি।

তিনি আরও জানিয়েছেন, এর আগে এত বড় গরু কখনো পালন করেননি তিনি। তাই ‘বাহুবলী’র প্রতি তার মায়া বেড়ে গেছে। এজন্য গত দুই তিন বছর ‘বাহুবলী’কে বিক্রি করেনি তিনি। কিন্তু এবার আর ‘বাহুবলী’কে নিজের কাছে ধরে রাখতে চাচ্ছেন না তিনি।

এ বিষয়ে আব্দুল আজিজ বলেন, আমার বাড়ি গ্রামে। এতো দামী গরু কিভাবে বিক্রি করবো সেই চিন্তায় আছি। এর মধ্যে একজন বলল ভালো নাম রাখলে নাকি গরু বিক্রি হয়। তাই নাম রেখেছি ‘বাহুবলী’।