চট্টগ্রামে দীর্ঘ দুই যুগ কারাভোগের পর দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ও তিন ডজন মামলার আসামি নাছির উদ্দিন ওরফে শিবির নাছির জামিন চেয়েও পাননি। নাছিরের বিরুদ্ধে ৩৬টি মামলা রেকর্ড হয়েছিল। এর মধ্যে অধ্যক্ষ গোপাল মুহুরী, হাটহাজারী ট্রিপল মার্ডার, পলিটেকনিকে জমির উদ্দিন হত্যা মামলাসহ বেশির ভাগ মামলায় খালাস পেয়েছেন তিনি। দুটি মামলায় সাজা হলেও তা ইতোমধ্যে ভোগ করে ফেলেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে জামিন চাইলে শুনানি শেষে তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন আদালত।

চট্টগ্রাম দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পিপি আইয়ুব খান বলেন, খুনের মামলার আসামি নাছির জামিন চাইলে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে বিরোধিতা করা হয়। সে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী হওয়ায় জামিন পেলে ফের অপরাধে জড়াতে পারে। পরে আদালত তাঁর জামিন নামঞ্জুর করেন।

নাছিরের আইনজীবী মনজুর আহমদ আনসারী বলেন, দেশের পরিস্থিতি এখন ভালো। অস্ত্র উদ্ধারের নামে বন্দুকযুদ্ধ বন্ধ। তাই জামিনের আবেদন করেছি। শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করেন। আদেশ পাওয়ার পর আপিল করে জামিন চাওয়া হবে।

১৯৯৮ সালের ৬ এপ্রিল গ্রেফতার হন নাছির। গ্রেফতারের পর চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি হন। এখন নোয়াখালী কারাগারে বন্দি রয়েছেন। বর্তমানে তার বিরুদ্ধে বিচারাধীন রয়েছে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আলী আব্দুল্লাহ-সহ তিনটি হত্যা মামলা। এর একটি মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে ও বাকি দুটি যুগ্ম জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন।

গতকাল বৃহস্পতিবার নাসির ১৯৯২ সালে ফটিকছড়িতে দুজনকে হত্যার চাঞ্চল্যকর ঘটনার মামলায় জামিন চান। সেই মামলায় ইতোমধ্যে সাবেক গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন আদালতে সাক্ষী দেন। ২০১৭ সালের মে মাসে সাবেক মন্ত্রী নাসিরের ফাঁসি চান।