অর্থনৈতিক অগ্রগতির পাশাপাশি বাড়ছে প্লাস্টিকের ব্যবহার এবং তৈরি হচ্ছে বর্জ্য। দৈনন্দিন পরিবেশগত সংকটের মধ্যে প্লাস্টিকের দূষণ অন্যতম। প্লাস্টিক বর্জ্য শহুরে অঞ্চলে বেশ কিছু জটিল চ্যালেঞ্জ তৈরি করে। এ সমস্যা সমাধানে একটি কার্যকর অংশীদারিত্ব তৈরি করেছে নিত্যব্যবহার্য পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান (এফএমসিজি) ইউনিলিভার বাংলাদেশ (ইউবিএল) এবং ইউএনডিপি বাংলাদেশ। প্রতিষ্ঠান দুটি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (এনসিসি) সহযোগিতায় দেশের নগরাঞ্চলকে গুরুত্ব দিয়ে নারায়ণগঞ্জের মতো প্রধান শহরে চালু করেছে প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা মডেল (পিডব্লিউএম)।

বৃহস্পতিবার ইউনিলিভারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে (এনসিসি) ইউনিলিভারের প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প পরিদর্শন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। আরও উপস্থিত ছিলেন ইউএনডিপি বাংলাদেশের ডেপুটি আবাসিক প্রতিনিধি ভ্যান গুয়েন, সংস্থাটির হেড অব প্রোগ্রাম ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড পার্টনারশিপ সাপোর্ট ইউনিটের (পিএমপিএসইউ) সহকারী আবাসিক প্রতিনিধি সরদার এম আসাদুজ্জামান, ইউনিলিভার বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাভেদ আখতার, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম এবং এসব প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

তাঁরা প্রকল্পের আওতাধীন প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহশালা পরিদর্শন ও প্লাস্টিক সংগ্রহ কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন। প্লাস্টিক বর্জ্য পৃথককরণ প্রক্রিয়া দেখেন। এ ছাড়া কমিউনিটির নেতা, বর্জ্য সংগ্রাহক এবং রাস্তা পরিচ্ছন্নতাকর্মী সঙ্গে আলোচনা করেন এবং সবশেষে প্রকল্পের 'প্লাস্টিক ভ্যালু অ্যাডিশন সেন্টার' ঘুরে দেখেন।

রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেন, 'প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্পে ইউনিলিভার, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন, ইউএনডিপি এবং ব্রিটিশ হাইকমিশনকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখে আমি বেশ আনন্দিত। নগরের প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আরও সুযোগ তৈরি করতে আমাদের অবশ্যই পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখা উচিত।'

জাভেদ আখতার বলেন, স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে পৌঁছানোর বিষয়ে ইউএনডিপির সক্ষমতা, আমাদের ব্যবসায়িক দক্ষতা ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের অটুট সহযোগিতার ফলে আমরা বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ পৌরসভাকেন্দ্রিক প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি।'