পদ্মা সেতুর ওপর থেকে মাঝপদ্মায় ঝাঁপ দিয়ে পোশাক তৈরি কারখানার এক শ্রমিক নিখোঁজ হয়েছেন। সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে সেতুর মাওয়া প্রান্তে ঘটনাটি ঘটে। রাত ৮টা পর্যন্ত পদ্মা নদীতে খোঁজাখুঁজি করে ওই যুবকের সন্ধান পায়নি মাওয়া নৌ পুলিশ।

নিখোঁজ যুবকের নাম মো. নুরুজ্জামান (৩৮)। তিনি ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার চোরাইল এলাকার আবদুল খালেকের ছেলে। নুরুজ্জামানের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার কাঁচপুর এলাকায়। ঢাকার ডেমরা এলাকার গার্মেন্টস কোম্পানিতে আয়রনম্যান পদে চাকরি করেন তিনি।

মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক মো. অহিদুজ্জাম বলেন, সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে ৯৯৯ থেকে ফোনে কল করে জানানো হয় পদ্মা সেতু থেকে এক ব্যক্তি নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন। খবর পেয়ে নৌ পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে যান। রাত ৮টা পর্যন্ত নদীতে খোঁজাখুঁজি করা হয়। মঙ্গলবার আবার উদ্ধারকাজ শুরু হবে।

নুরুজ্জামানের সঙ্গে আরও এক ব্যক্তি ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। জাতীয় শোক দিবসে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিতে গিয়েছিলেন তাঁরা। সেখান থেকেই তাঁরা ঢাকার উদ্দেশে সেতুর পশ্চিম পাশের লেন দিয়ে পার হচ্ছিলেন। গাড়ি ধীরগতির ছিল। তখন ওই যুবক গাড়ি থেকে ঝাঁপ দেন। তবে কী কারণে তিনি গাড়ি থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।