চলতি অর্থবছর বস্ত্র খাতের পাঁচটি উপখাতসহ ৪৩ ধরনের পণ্য রপ্তানিতে নগদ সহায়তা দেবে সরকার। আগের মতোই ১ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত নগদ সহায়তা মিলবে। এবার কেবল নতুন করে হালাল প্রক্রিয়াজাত মাংস রপ্তানিতে ১০ শতাংশ হারে নগদ সহায়তার বিষয়টি যুক্ত করা হয়েছে।

এ ছাড়া অন্য সব ক্ষেত্রে আগের সব বহাল রাখা হয়েছে। সরকারি সিদ্ধান্তের আলোকে সোমবার এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

শতভাগ হালাল মাংস রপ্তানিতে বেশ আগে থেকে নগদ সহায়তা দিয়ে আসছে সরকার। এর সঙ্গে যুক্ত হলো শতভাগ হালাল উপায়ে প্রক্রিয়াজাত মাংস রপ্তানিতে নগদ সহায়তার বিষয়টি। আর বস্ত্র খাতে নতুন বাজার সম্প্রসারণের আওতায় যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও ইইউভুক্ত দেশগুলোতে বাড়তি নগদ সহায়তা দেওয়া হয় না। যুক্তরাজ্য ইইউ থেকে বের হয়ে যাওয়ায় দেশটিতে রপ্তানিতেও যে নতুন বাজার সম্প্রসারণের আওতায় বাড়তি নগদ সহায়তা মিলবে না, তা জানানো হয়েছে।

গত অর্থবছরের মতো এবারও বিশেষায়িত অঞ্চল তথা বেজা, বেপজা ও হাইটেক পার্কে অবস্থিত সব ধরনের প্রতিষ্ঠান রপ্তানির বিপরীতে নগদ সহায়তা পাবে। গত অর্থবছরের আগ পর্যন্ত বিশেষায়িত অঞ্চলে অবস্থিত শুধু দেশীয় কোম্পানি নগদ সহায়তা পেত। গত অর্থবছর থেকে বিশেষায়িত অঞ্চলের 'এ' টাইপ তথা বিদেশি এবং 'বি' টাইপ তথা যৌথ মালিকানার প্রতিষ্ঠানের প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্য রপ্তানির বিপরীতে ৪ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।