আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলমের বিরুদ্ধে দায়ের করা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলার তদন্ত কার্যক্রমের বৈধতা প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিলও (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) খারিজ করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চ রোববার এই আদেশ দেন। এর ফলে শহিদুল আলমের বিরুদ্ধে এই মামলার তদন্ত চলতে আর কোনো বাধা রইল না।

আদালতে শহিদুল আলমের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ফিদা এম কামাল। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন।

২০১৮ সালের ৬ আগষ্ট শহিদুল আলমের বিরুদ্ধে ঢাকার রমনা থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়। মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামি শহিদুল আলম তার ফেসবুক টাইমলাইনের মাধ্যমে দেশি-বিদেশি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে কল্পনাপ্রসূত অপপ্রচার চালাচ্ছেন। যা রাষ্ট্রের জন্য ক্ষতিকর।

পরে ১২ আগষ্ট তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। একই বছরের ১৫ নভেম্বর তাকে জামিন দেন হাইকোর্ট। এরপর তিনি তার বিরুদ্ধে করা মামলার তদন্ত প্রশ্নে হাইকোর্টে আবেদন করেন। যার শুনানি নিয়ে ২০১৯ সালর ১৪ মার্চ তদন্ত কার্যক্রম প্রশ্নে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি মামলার কার্যক্রমও স্থগিত করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর তদন্ত কার্যক্রমের বৈধতা নিয়ে জারি করা রুল খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।