জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি বলেছে, অপরিকল্পিত লকডাউন অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে বিপজ্জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে। করোনা নিয়ন্ত্রণে রোগী শনাক্তকরণ, কন্টাক্ট ট্রেসিং, আইসোলেশন, কোয়ারেন্টাইনসহ যথাযথ ব্যবস্থা না নিয়ে আংশিক লকডাউন, সর্বাত্মক লকডাউন, পুরোপুরি লকডাউন- এসব গালভরা ঘোষণা করোনা নিয়ন্ত্রণে মোটেই সহায়ক হবে না। 

সোমবার এক বিবৃতিতে জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার এসব কথা বলেন।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় প‎াঁচ দফা দাবি তুলে ধরে তারা বলেন, সরকার এর আগে করোনা নিয়ন্ত্রণের প্রশ্নে বহু আত্মতুষ্টি প্রকাশ করেছে। কিন্তু এখন সেই সময় নয়। করোনার ভয়াবহতা নিয়ন্ত্রণে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলা অনিবার্য হয়ে পড়েছে। ঐকমত্যের ভিত্তিতে লকডাউন কার্যকর করতে হবে। এ ধরনের সর্বগ্রাসী জাতীয় সংকট কোনো একক দলীয় সরকার দিয়ে মোকাবিলা করা সম্ভব হবে না।

তারা আরও বলেন, যেভাবে প্রতিদিন করোনায় মৃত্যু এবং সংক্রমণের বিস্তার ঘটছে, তা যথাযথ মোকাবিলায় ব্যর্থ হলে চরম বেদনাদায়ক অবস্থার সৃষ্টি হবে। তাই মানুষের মূল্যবান জীবন সুরক্ষা ও করোনার ভয়াবহ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য সব রাজনৈতিক দল, জ্ঞান-বিজ্ঞানের অধিকারী পেশাজীবী ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের নিয়ে জাতীয় ঐক্য স্থাপন করতে হবে। সমাজে হার্ড ইমিউনিটি গড়ে তোলার লক্ষ্যে ব্যাপক জনগোষ্ঠীর মধ্যে টিকা প্রদান কর্মসূচির বিস্তার ঘটাতে হবে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী তথা নিরন্ন মানুষের খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে।


মন্তব্য করুন