পণ্য সরবরাহ না করে গ্রাহকের ২০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ‘ই-নিডজ’ নামের একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় গুলশান থানায় এক গ্রাহক প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ও এমডিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। সম্প্রতি ওই মামলা দায়েরের পর পুলিশও নড়েচড়ে বসেছে।

মামলার আসামিরা হলেন- প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান ওয়াহিদ ইকবাল, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাহিদ ইকবাল, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আবদুল কাইয়ুম, চেয়ারম্যানের স্বজন নওমী আশরাফ, সায়মা আফরিন, আইরিন পারভীন ও হোসেইন রাহী।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, গ্রাহকের টাকা ফেরত না দিয়ে ই-নিডজের চেয়ারম্যান ওয়াহিদ ও এমডি নাহিদ দেশ থেকে পালিয়েছেন। তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। অফিসটিও তালাবদ্ধ। 

এতে আরও বলা হয়, ই-নিডজ নামের প্রতিষ্ঠানটি গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত গ্রাহকের অন্তত ২০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে।

মামলার বাদি আবদুলল্গাহ আল নোমান বলেন, টাকা নিয়ে শতাধিক গ্রাহককে পণ্য না দিয়ে ই-নিডজের চেয়ারম্যান ওয়াহিদসহ অন্য আসামিরা টালবাহানা শুরু করেন। একপর্যায়ে তিনিসহ অন্য গ্রাহকেরা ই-নিডজের অফিসে যান। তখন অনেক গ্রাহককেই টাকা ফেরতের চেক দেওয়া হয়। চেক নগদায়নের তারিখ ছিল ২৮ ফেব্রুয়ারি। ব্যাংকে সেই চেক জমা দিলে বলা হয়, ই-নিডজের ব্যাংক হিসাবে পর্যাপ্ত টাকা নেই। এরপর তারা বিভিন্ন জায়গায় দৌড়ঝাঁপ দিয়ে শেষ পর্যন্ত ১ এপ্রিল মামলা করেন।

পুলিশ জানায় ভুক্তভোগী গ্রাহকরা অভিযোগ করেছেন, প্রতিষ্ঠানটিতে তারা মোটরসাইকেল, মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন পণ্য অর্ডার দিয়ে এবং টাকা পরিশোধ করেও পণ্য পাননি।

গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, ই-নিডজ নামের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের মামলাটির তদন্ত চলছে। আসামিদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।