বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। সোমবার রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র বিজনেস কাউন্সিলের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাতে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিনিধি দলে যুক্তরাষ্ট্রের ২৭ জন ব্যবসায়ী ছিলেন।

প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীরা খুবই শক্তিশালী। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক সম্পর্ক রয়েছে। তাদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো হলে অনেক নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বিভিন্ন দেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিপুল বিনিয়োগ রয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে লাভজনক বিনিয়োগের বড় সুযোগ রয়েছে। যেমন তথ্যপ্রযুক্তি খাত, ব্লু-ইকনমিসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের সুযোগ আছে। এ কারণে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের বিশেষভাবে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের ৯০ শতাংশ বিনিয়োগ জ্বালানি খাতে। তাদের নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য বলেছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের ক্ষেত্রে জিএসপি সুবিধা রাজনৈতিকভাবে বেশি বলা হয়। কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নোত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হচ্ছে। এ অবস্থায় বাংলাদেশ এখন বিভিন্ন দেশের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চায়। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্য প্রবেশ করতে গেলে সাড়ে ১৫ শতাংশ কর দিতে হয়। সেটা কমানোর জন্য সবসময়ই বলা হচ্ছে।