কক্সবাজারের বাঁকখালী নদী রক্ষায় হাইকোর্টের নির্দেশ বাস্তবায়ন না করে উল্টো আরএস ও বিএস ম্যাপ মোতাবেক কতটুকু জমি দখল হয়েছে এবং কারা দখল করেছে- তা চিহ্নিত করতে পরিবেশ অধিদপ্তর কমিটি গঠন করেছে। এ সিদ্ধান্তকে আদালতের নির্দেশের লঙ্ঘন বলছে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা)। সংস্থাটি আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব, জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান, চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ ১২ কর্মকর্তাকে চিঠি দিয়েছে। গতকাল সোমবার ডাকযোগে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পদক্ষেপ না নিলে সংশ্নিষ্ট সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বাঁকখালী নদী সংরক্ষণ, অবৈধ দখল এবং দূষণ থেকে রক্ষা করে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে বেলা ২০১৪ সালে হাইকোর্টে একটি রিট মামলা দায়ের করে। মামলার শুনানি শেষে একই বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর সিএস ম্যাপ অনুযায়ী নদীর সীমানা নির্ধারণ অবৈধ দখলদার ও দূষণকারীর হাত থেকে নদীকে সংরক্ষণ বিষয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।