এবারের রিহ্যাব মেলায় মোট ৩০০টি অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রির জন্য প্রদর্শন করছে আন্তর্জাতিক আইএসও সনদপ্রাপ্ত দেশের অন্যতম শীর্ষ আবাসন কোম্পানি শেলটেক।

রাজধানীর ইস্কাটন, বনানী, মিরপুর, উত্তরা, বাড্ডা, মগবাজার, আদাবর-শ্যামলী এলাকায় মোট ২৩টি প্রকল্পে রয়েছে এসব ফ্ল্যাট। মেলায় শেলটেকের ফ্ল্যাট বুকিং দিলে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ছাড় পাওয়া যাবে। অফিস স্পেস বা জমি বুকিংয়েও একই ছাড় রয়েছে।

শেলটেকের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, স্থানভেদে প্রতি বর্গফুটের দাম হবে সর্বনিম্ন সাড়ে ৯ হাজার থেকে ১৮ হাজার টাকা পর্যন্ত। তাদের প্রকল্পগুলোর মধ্যে অন্যতম মালিবাগের শেলটেক এনক্লেভ টাওয়ার ও গেণ্ডারিয়ার শেলটেক খান হেরিটেজ। প্রায় ৩২ কাঠায় নির্মিত ২০তলা বিশিষ্ট এনক্লেভ টাওয়ারে ১৩১টি আবাসিক অ্যাপার্টমেন্ট রয়েছে। এগুলোর আকার ৯৭১ থেকে ১ হাজার ৩৩৮ বর্গফুট। খান হেরিটেজ প্রকল্পটি প্রায় ১১ কাঠা জায়গায় নির্মাণ করা হচ্ছে। ১০ তলা এ ভবনে ২৬টি আবাসিক অ্যাপার্টমেন্ট থাকবে, যেগুলোর আকার হবে ১ হাজার ৪৮৫ থেকে ১ হাজার ৫০৫ বর্গফুট। প্রকল্পগুলোতে শিশুদের খেলার জায়গা, কমিউনিটি স্পেসহ বিভিন্ন নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থাকছে।

শেলটেকের বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের জ্যেষ্ঠ সহকারী মহাব্যবস্থাপক একেএম রাফিউল ইসলাম বলেন, তাঁরা সব সময় সাশ্রয়ী আবাসনে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। অ্যাপার্টমেন্টের দাম গ্রাহকের নাগালের মধ্যে রেখে সর্বোচ্চ মানের পণ্য নিশ্চিত করার চেষ্টা করেন। অ্যাপার্টমেন্টের দাম ও হস্তান্তরের বিষয়েও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে শেলটেক।

১৯৮৮ সালে যাত্রা শুরু করে শেলটেক। পরিকল্পিত নগরায়ণকে গুরুত্ব দিয়ে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত, পরিবেশবান্ধব আবাসিক ও বাণিজ্যিক প্রকল্প গড়ে তোলার মাধ্যমে ৩৫ বছর ধরে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। শেলটেকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান গ্রাইন্ডটেক একমাত্র দেশীয় উৎপাদক হিসেবে ইউরোপীয় প্রযুক্তিতে এখন দেশেই তৈরি করছে শিরিষ কাগজ।

এ ছাড়া শেলটেক সিরামিকস এখন দেশে প্রিমিয়াম ফ্লোর ও ওয়াল টাইলসের অন্যতম বড় উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। রিহ্যাব আবাসন মেলায় এই দুটি প্রতিষ্ঠানেরই স্টল রয়েছে।