শিক্ষা ক্যাডারে বড় ধরনের রদবদল

প্রকাশ: ৩০ মে ২০১৯     আপডেট: ৩০ মে ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে বড় ধরণের রদবদল করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে পৃথক আদেশে মোট ৯৯ কর্মকর্তাকে বিভিন্ন পদে বদলি করা হয়। এর মধ্যে সরকারি কলেজ শিক্ষক ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বিভিন্ন দফতর ও সংস্থার বেশ ক'জন কর্মকর্তাকে বদলি এবং ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়েছে।

আদেশে দেখা গেছে, সারাদেশের বিভিন্ন সরকারি কলেজ শিক্ষকদের অন্য কলেজে বদলি করা হয়েছে। এছাড়াও জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) থেকে একযোগে ১৩ কর্মকর্তাকে ওএসডি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি), বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ১৬ কর্মকর্তাকে বিভিন্ন স্থানে বদলি করা হয়েছে।

বদলি হওয়া কর্মকর্তাদের মধ্যে কুমিল্লা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক মো. আবদুস সালামকে একই শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে। যশোর এম এম সরকারি কলেজের অর্থনীতির অধ্যাপক আশফাকুস সালেহীনকে ১৫০০ কলেজ উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক এবং আবুল কালাম আজাদকে ডিআইএ'র উপ-পরিচালক, কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগি অধ্যাপক (বাংলা) মাসুদা বেগমকে নায়েমের উপ-পরিচালক পদে বদলি করা হয়েছে।

এনসিটিবির ১৩ ওএসডি কর্মকর্তার মধ্যে রয়েছেন- এনসিটিবির সদস্য (পাঠ্যপুস্তক) অধ্যাপক ড. মিয়া ইনামুল হক সিদ্দিকী (রতন সিদ্দিকী), মাধ্যমিকের ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক মো. আবদুর রহিম, মাধ্যমিকের সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক নূর মোহাম্মদ, বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক হাসমত মনোয়ার।

বদলি হওয়া সব শিক্ষক-কর্মকর্তাদের আগামী ১৩ জুনের মধ্যে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে বলা হয়েছে।

ওএসডি হওয়া কর্মকর্তাদের তালিকায় আরও রয়েছেন- এনসিটিবির গবেষণা কর্মকর্তা সহযোগী অধ্যাপক মো. আবু সালেহ, প্রাথমিক শাখার বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক খ ম মঞ্জুরুল আলম, সহযোগী অধ্যাপক (উপ-সচিব) মো. সালাহ উদ্দিন, ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক চৌধুরী মুসাররাত হোসেন জুবেরী, ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক জাহিদ বিন মতিন এবং প্রাথমিক শাখার বিশেষজ্ঞ সহকারী অধ্যাপক মো. মোস্তফা সাইফুল আলম, গবেষণা কর্মকর্তা সহকারী অধ্যাপক মো জিল্লুর রহমান, গবেষণা কর্মকর্তা সহকারী অধ্যাপক মো. আবদুল মুমিন মোসাব্বির ও গবেষণা কর্মকর্তা সহকারী অধ্যাপক তৈয়বুর রহমান।

এই রদবদল নিয়ে শিক্ষা প্রশাসনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেক কর্মকর্তা। তাদের অভিযোগ, শিক্ষা ক্যাডারের একটি বিশেষ সিন্ডিকেটের লোকেরা- গত দশ বছরে যারা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ধীন বিভিন্ন দফতর, অধিদফতরে দীর্ঘদিন ছিলেন, যারা বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতিতে জড়িয়েছেন, এ কারণে তাদের কয়েকজনকে ঢাকার বাইরে শাস্তিমূলক বদলিও করা হয়েছিল- তারাই এখন পুরস্কার হিসেবে বদলি হয়ে আরও ঊর্দ্ধতন ও গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়ন পেয়ে ফের ঢাকায় আসছেন।

নতুন শিক্ষামন্ত্রী দায়িত্ব নেওয়ার পর গত ২৫ মার্চ শিক্ষা ক্যাডারে ৩৪ জন কর্মকর্তাকে বদলি ও ওএসডি করা হয়। তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে একই কর্মস্থলে থাকা ১৮ জনকে ওএসডি এবং ২৬ জনকে নতুন পদে পদায়ন করা হয়।