নদী বাঁচাতে উৎসমুখ খুলে দেয়ার দাবি

প্রকাশ: ১৭ জুলাই ২০১৯      

ইবি প্রতিনিধি

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেস কর্নারে সংবাদ সম্মেলন- সমকাল

নদী বাঁচাতে উৎসমুখ খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছে রিভারাইন পিপল ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিট।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেস কর্নারে 'জিকে প্রকল্প অঞ্চলরে নদ-নদী সুরক্ষা বিষয়ক' সংবাদ সম্মলন করে এ দাবি জানানো হয়। 

এতে বক্তারা বলেন, ‘সরকারের পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক চালিত বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ জিকে সেচ প্রকল্পের পাম্প হাউজটি গঙ্গা নদীর ডান তীরে কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলায় স্থাপিত। এই সেচ ব্যবস্থায় গঙ্গা নদী থেকে পাম্পের মাধ্যমে পানি উত্তোলন করে আওতাধীন এলাকায় কৃত্রিম ক্যানেলও জালের মতো ছড়িয়ে দেয়ার পরও নদ-নদীর যা হওয়ার কথা তাই হয়েছে।'।

তারা বলেন, 'জিকে প্রকল্পের এই ক্যানেলের যেখানেই নদীর সঙ্গে দেখা হয়েছে সেখানেই নদীটি তার উৎসমুখ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে। সরকার চাষাবাদ ও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের জন্য হাতে নেয়া প্রকল্প গুলো এখন গলার কাটা হয়ে গেছে। এসকল প্রকল্প নদীর উৎসমুখ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। তাই নদী বাঁচাতে নদীর উৎসমুখ খুলে দিতে হবে।’

এছাড়া নদীর দ্বৈত প্রবাহ সৃষ্টি করে সাইফুন ব্যবস্থা চালুর দাবী জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির আহ্বায়ক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক রবিউল হোসনের সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করনে পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আলতাফ হোসেন রাসেল।

এসময় সংগঠনের উপদেষ্টা অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল মুঈদ, সদস্য সচিব ওবাইদুল হক, কুমার নদ সংরক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ মারুফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।