জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ২০২০-২১ সেশনের প্রথম বর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন আগামী ১ জুন থেকে শুরু হবে। প্রাথমিক ধাপের আবেদন চলবে ১৫ জুন পর্যন্ত। এ বছর পাশের হার বেশি হওয়ায় বাড়ানো হয়েছে জিপিএ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রাথমিক ধাপের আবেদনের পর বাছাই করে নির্দিষ্ট সংখ্যক শিক্ষার্থী চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো. আবু হাসান বলেন, ‘বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘‘এবছর পাশের হার বেশি হওয়ায় জিপিএ বৃদ্ধি করা হয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় পৃথকভাবে ‘এ’ ইউনিটে নূন্যতম ৪ পয়েন্ট, ‘বি’ ইউনিটে ৩.৫, ‘সি’ ইউনিটে ৩.৫, ‘সি-১’ ইউনিটে ৩.৫, ‘ডি’ ইউনিটে ৪, ‘ই’ ইউনিটে মানবিক-ব্যবসায় ৩.৭৫ ও বিজ্ঞানে ৪, ‘এফ’ ইউনিটে ৪, ‘জি’ ইউনিটে ৪, ‘এইচ’ ইউনিটে ৪ এবং ‘আই’ ইউনিটে ৩.৫ পয়েন্ট থাকতে হবে।’’

ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো. আবু হাসান আরও বলেন, প্রাথমিক ধাপে প্রতিটি ইউনিটে আবেদনের জন্য সব শিক্ষার্থীকে ৫৫ টাকা করে দিতে হবে। বাছাইয়ের পর এ, বি, সি ও ডি ইউনিটে আলাদা করে ১১০০ টাকা এবং বাকি গুলোতে ৭০০ টাকা করে ফী নির্ধারণ করা হয়েছে।

উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক আমির হোসেন বলেন, মহামারির কারণে এখনই পরীক্ষার কোনো তারিখ নির্ধারিত হয়নি। আবেদনপত্র নেওয়ার পর মহামারির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়া হবে। আগের মতো শিফটভিত্তিক পরীক্ষা নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এ, বি, সি ও ডি ইউনিটে বাছাই করা ১৮ হাজার করে মোট ৭২ হাজার, সি-১ ইউনিটেত (চারু ও নাট্যকলা) আরও ৪৫০০ জন শিক্ষার্থী চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

এ ছাড়া, বিজনেস এবং আইন অনুষদে প্রতিটি ইন্সটিটিউটের ৯ হাজার জন চূড়ান্ত পরীক্ষা দিতে পারবেন। অন্যান্য ইনস্টিটিউটে মোট ৪৫০০ জন পরীক্ষা দিতে পারবেন।

ফরমের মূল্য অনধিক ৩০০ টাকা করা এবং প্রাথমিক আবেদনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি: এদিকে ভর্তি পরীক্ষার ফরমের মূল্য বৃদ্ধি ও বাচাই করার নামে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ সীমিত করার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদ ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জাবি শাখা।

শুক্রবার পৃথক দুটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানায়।

ভর্তি পরীক্ষার ফি অনধিক ৩০০ টাকা করা এবং উচ্চ মাধ্যমিক/সমমান পরীক্ষার ফলাফলকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা হিসেবে গণ্য না করার দাবি জানিয়েছে সংগঠন দুটি। অন্যথায় আন্দোলনের মধ্যদিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে এ অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত বাতিলে বাধ্য করা হবে বলেও জানান তারা।