জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা আগের নিয়মে নেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট।

রোববার দুপুর ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌরঙ্গী এলাকা মোড়ে আয়োজিত এ বিক্ষোভে বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকায় থেকে ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এমন কিছু ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীও অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রনি বলেন, প্রতিবছর ভর্তি পরীক্ষা থেকে উদ্বৃত্ত অর্থ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সংশ্লিষ্টরা ভাগ-বাটোয়ারা করে নেন। করোনা পরিস্থিতিতে আবেদন ফি না বাড়িয়ে তা অনধিক ৩০০ টাকার মধ্যে রাখতে হবে। পরবর্তী শিক্ষাবর্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ না দেয়ার পায়তারাও বন্ধ করতে হবে।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহ্বায়ক শোভন রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অবিবেচনাপ্রসূত সিদ্ধান্তের ফলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা মানসিক যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছেন। তাই অপেক্ষা না করে অতিদ্রুত সিলেকশন পদ্ধতি বাতিল ও ভর্তি আবেদন ফরমের মূল্য কমানোর সিদ্ধান্ত জানাতে হবে।

এ সময় ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক তাসবিবুল গণি নিলয়ের সঞ্চালনায় প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী সুদীপ্ত দে এবং কয়েকজন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী বক্তব্য দেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার  বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি পরিচালনা কমিটির সভায় চলতি বছরে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে শিক্ষার্থী বাছাই করে সবমিলিয়ে এক লাখ ৮ হাজার জনকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া ও আবেদন ফরমের মূল্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ভর্তিচ্ছুরা এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানান। 

শনিবার  বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি পরিচালনা কমিটির জরুরি সভা শেষে ভর্তি পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট বিষয়াবলির সিদ্ধান্ত ১৮ মের সভায় চূড়ান্ত করা হবে বলে জানানো হয়।

মন্তব্য করুন