ডেন্টালে ভর্তির আশ্বাসে প্রতারণা ও টাকা আত্মসাতের ঘটনায় আবু মুসা আসারী নামে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে আটক করেছে ডিবি ওয়ারী বিভাগ। আটককৃত ওই শিক্ষার্থী ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। রোববার রাতে গেন্ডারিয়া থানার নারিন্দা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তার কাছ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরী কমিশনের ভুয়া ২টি পরিচয়পত্র, একাধিক ভুয়া এনআইডি কার্ড ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের প্রবেশপত্রের কপি জব্দ করা হয়।

ডিবি ওয়ারী বিভাগের ডিসি মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন বলেন, 'ভিকটিম তরুণী গত ১০ অক্টোবর ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে অকৃতকার্য হয়েছিলো। পর মুসা আসারীর সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে তার পরিচয় হয়। মুসা আসারী স্বাস্থ্য অধিদফতরের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে, ভিকটিমের রোল নম্বর নেন। তাৎক্ষণিকভাবে যাচাই করে জানান যে তার রেজাল্ট ভালোই হয়েছে। ওই শিক্ষার্থী চান্স পেয়েছেন কিন্তু ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনিয়মের কারণে তার নাম আসেনি। তবে ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে তাকে ডেন্টালে ভর্তি করিয়ে দিতে পারবেন। তাৎক্ষণিকভাবে ভিকটিমের কাছে এত টাকা না থাকায় মুসাকে ২ লাখ টাকা দেন।'

তিনি আরও বলেন, বিশ্বাস অর্জন করার জন্য ভিকটিমের ইমো আইডিতে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এক কর্মকর্তার পরিচয়পত্র ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সঙ্গে ভুয়া কথোপকথনের স্ক্রিনশট পাঠান। টাকা দেওয়ার পর দিন মুসাকে ফোন দিয়ে রেজাল্টের বিষয়ে জানতে চাইলে সে জানায়, আজকের মধ্যেই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে ১ লাখ টাকা দিতে হবে। তা নাহলে রেজাল্ট পরিবর্তন হবে না। তখন বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হয় ভুক্তভোগীর। এভাবে অসংখ্য প্রার্থীর কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন মুসা।