চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) সাবেক ১৪ নম্বর লালখান বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর এফ আই কবির আহমদ মানিকের বিরুদ্ধে চারটি মামলা করেছে দুদক। মঙ্গলবার দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়-১ মামলাগুলো দায়ের করে। দুদকের সহকারী পরিচালক আবু সাঈদ এসব মামলার বাদী হয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, সরকারি পাহাড়, স্থাপনা ও মসজিদের জায়গা দখলে নিয়ে ভাড়া দেওয়া ও বিক্রি করার মাধ্যমে ১ কোটি ৪৭ লাখ ৮৭ হাজার টাকা অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে সাবেক কাউন্সিলর মানিকের বিরুদ্ধে। মামলায় মানিক ছাড়াও তিন জনকে আসামি করা হয়েছে। এরা হলেন- এনজিও কর্মকর্তা ফয়মাল সিদ্দিকী, কাজী মামুদ ইমাম বিলু ও এ এন ফারম্নক আমেদ।

দুর্নীতি দমন কমিশন চট্টগ্রাম সম্বনিত জেলা কার্যালয়-১ এর উপ পরিচালক লুৎফর কবির চন্দন সমকালকে বলেন, চসিকের সাবেক কাউন্সিলর মানিকের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার করে সরকারি জায়গা দখলে নিয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের প্রমাণ পাওয়ায় কমিশনের নির্দেশে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হবে।

দুদক জানায়, একটি মামলায় কাউন্সিলর মানিকের বিরুদ্ধে সরকারি পাহাড় কেটে বাড়ি নির্মাণ, পুকুর খনন করে ভাড়া বাবদ ৪৫ লাখ ৩৬ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়। আরেকটিতে মানিক ও জাগো ফাউন্ডেশনের প্রকল্প পরিচালক ফয়মাল সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে ২৮ লাখ ১১ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়। তৃতীয়টিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গা দখল করে নকশা বহির্ভূত মার্কেট নির্মাণ করে ২৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়।

এ ছাড়া চতুর্থটিতে মনিক ও লালখান বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সাবেক সভাপতি কাজী মামুদ ইমাম বিলু ও সাধারণ সম্পাদক এ এন ফারুক আমেদের বিরুদ্ধে মসজিদের দোকান বরাদ্দের নামে ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়। ২০১৮ সালের ৮ আগস্ট দুদক প্রধান কার্যালয় থেকে কাউন্সিলর মানিকের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দেওয়া হয়।