টাঙ্গাইলে শ্রমিক লীগ নেতা রেজাউল হোসেন হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। শনিবার নিহতের ভাই অ্যাডভোকেট রাশেদুল ইসলাম বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

নিহত রেজাউল জেলা শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ছিলেন।

আসামিরা হলো- টাঙ্গাইল পৌর শহরের এনায়েতপুর দক্ষিণপাড়ার হারুন অর রশীদ লেবুর ছেলে সাজ্জাদান সিন দ্বীপ, ছোট কালিবাড়ির আনোয়ার হোসেনের ছেলে রবিন ওরফে ধাতু রবিন, কোদালিয়া এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন ও কোদালিয়া সদর হাসপাতাল কোয়ার্টারের আব্দুল হামিদের ছেলে পাভেল।

মামলার বাদী রেজাউলের ভাই অ্যাডভোকেট রাশেদুল ইসলাম জানান, গত ২১ নভেম্বর রাতে নতুন বাস টার্মিনালে রেজাউলকে কুপিয়ে ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টায় লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

টাঙ্গাইল সদর থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন জানান, চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।