জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক চতুর্থ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা চলতি বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে নেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনের সড়কে ৪৬তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা এ কর্মসূচির পালন করেন। এতে অংশ নেন শতাধিক শিক্ষার্থী।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকেও একই ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েও বন্ধ রয়েছে সশরীরে সব একাডেমিক কার্যক্রম। এতে বিপাকে পড়েছেন চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানান, ফেব্রুয়ারির মধ্যে তাদের চতুর্থ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করে বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ করে দিতে হবে। পরবর্তী তিন কার্যদিবসের মধ্যে সিন্ডিকেট মিটিংয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এ ছাড়া একই ব্যাচের আগের পরীক্ষাগুলোর ফল দ্রুত প্রকাশ ও করোনার বন্ধে স্থগিত পরীক্ষাগুলো নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও জানান শিক্ষার্থীরা।

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী জহির ফয়সালের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী নূর হোসেন বলেন, পাঁচ বছরেও অনার্স শেষ করতে পারিনি। এখনও তৃতীয় বর্ষের রেজাল্ট পাইনি। এমনকি একই বর্ষে একাধিক ব্যাচের শিক্ষার্থী ক্লাস করছে। আমাদের সেশনের বন্ধুরা শিক্ষাজীবন শেষ করে চাকরি করছে। এই হতাশার শেষ কোথায়?

শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে সংহতি জানিয়ে ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ সভাপতি রাকিবুল রনি বলেন, এই ব্যাচের শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বারবার তাদের পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষকরা ঠিক মতো ক্লাস-পরীক্ষাও নেননি।

মানববন্ধন শেষে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বরাবর স্মারকলিপি দেন শিক্ষার্থীরা। উপাচার্যের পক্ষে স্মারকলিপি নেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ।